জম্মু-কাশ্মীরে গাড়িবোমা হামলার পরিকল্পনা বানচাল

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনী দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় বিস্ফোরক দ্রব্য বোঝাই একটি গাড়ি উদ্ধার করে, যা একটি সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনার অংশ ছিল। এবার গোয়েন্দা সূত্র জানায়, কাশ্মীর উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর জাইশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গিগোষ্ঠী আরেকটি গাড়িবোমা হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ এ তথ্য জানায়।

পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠীর এ ধরনের হামলার পরিকল্পনা বানচাল করতে নিরাপত্তা বাহিনীকে উচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে।

গত ২৮ মে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি যৌথ দল দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার রাজপোরার আয়েনগুন্ড এলাকায় একটি স্যান্ট্রো গাড়ি থেকে উন্নত বিস্ফোরক যন্ত্র (আইইডি) উদ্ধার করে। বোমা নিষ্ক্রিয়কারী স্কোয়াড ওই আইইডি সফলভাবে অচল করতে সক্ষম হয় এবং বড় ধরনের একটি আক্রমণ এড়ানো সম্ভব হয়।

জম্মু-কাশ্মীরের একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, আইইডি বহনকারী যানবাহনটি সম্পর্কে ৪-৫ দিন আগে জানতে পারে নিরাপত্তা বাহিনী। আইইডি বোঝাই গাড়িটি স্পট করার সঙ্গে সঙ্গেই একটি বোমা নিষ্ক্রিয়কারী স্কোয়াড ঘটনাস্থলে ডাকা হয়।

অনুসন্ধান অভিযানটি পরিচালনাকারী যৌথ দলে ৪৪ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস, সিআরপিএফ এবং পুলওয়ামা পুলিশ ছিল।

জঙ্গি গোষ্ঠী হিজাব-উল-মুজাহিদিনের সঙ্গে জড়িত গাড়ির মালিককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

এদিকে বুধবার (৩ জুন) পুলওয়ামা জেলার কঙ্গন এলাকায় একটি অভিযানে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে জাইশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গিগোষ্ঠীর তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ জানায়, এসময় নিহত সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

নিহতদের মধ্যে সংগঠনটির শীর্ষ কমান্ডার আবদুল রেহমান ওরফে ফৌজি ভিয়া ছিলেন। আফগানিস্তান যুদ্ধে অংশ নেওয়া রেহমান একজন আইইডি বিশেষজ্ঞ ছিলেন এবং সম্প্রতি ব্যর্থ গাড়িবোমা হামলার মূল পরিকল্পনাকারীও ছিলেন তিনি।

নিরাপত্তা বাহিনী বড় আকারের অভিযান পরিচালনা করায় জাইশ জঙ্গিরা বিপাকে পড়েছে বলেও জানা গেছে।