মণিরামপুরে পুত্র ও পুত্রবধূদের মারপিটে হাসপাতালে ভর্তি পিতা-মাতা

নূরুল হক, মণিরামপুর : মণিরামপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পিতা-মাতাকে পিটিয়ে জখম করেছে পুত্র ও পুত্রবধূ। পৌর এলাকার মহাদেবপুর এলাকায় বুধবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। রক্তাক্ত অবস্থায় পিতা-মাতাকে উদ্ধার করে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় আহতের কন্যা বাদী হয়ে মণিরামপুর থানায় অভিযোগ হয়েছে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, মণিরামপুর পৌর শহরের মহাদেবপুর এলাকার একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র পুত্র ফারুক হোসেন (৩৫), রবিউল ইসলাম ইসলাম (৩২) ও পুত্রবধূ তহমিনা খাতুন (৩০) কৃষক আব্দুল জলিল গাজী (৬৫) ও তার স্ত্রী মোমেনা খাতুন (৫৫) পিটিয়ে জখম করে। এ সময়ে ফারুক হোসেনের প্রথম পক্ষের ছেলে রাজু ইসলাম বাধা দিতে গেলে তাকে মারপিট করে আহত করে। দফায়-দফায় পুত্র ও পুত্রবধুর হাতের কাঠ ও বাঁশের লাঠির আঘাতে আব্দুল জলিল গাজী ও মোমেনা বেগম আহত হয়। এক পর্যায়ে এলাকবাসীর সহযোগিতায় পরিবারের অন্যান্যরা আহতের উদ্ধার মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ওই দিন রাতে আহত জলিল গাজীর মেয়ে লাইলী বেগম বাদী হয়ে পুত্র মোঃ ফারুক হোসেন, রবিউল ইসলাম, এবং পুত্রবধূ তহমিনা খাতুন (৩০) আসামি করে মণিরামপুর থানায় একটি একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

পুত্রদের হাতে পিতা-মাথা জখমের বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোপাল মল্লিক জানান, বিষয়টি আমিও শুনেছি। যদিও এটা একটা পারিবারিক বিষয়।তারপরও আমি উভয়ের সংগে কথা বলেছি, দেখি স্থানীয়ভাবে এটার কোনো সমাধান করা যায় কি না।

অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মণিরামপুর থানার এসআই আজাদ হোসেন।