কৃষকদের মাঝে ৫টি কোম্পানীর ধান বীজ প্রদান

জাকির হোসেন, কুয়াদা : সিসা ফেজ-থ্রি প্রকল্পের আওতায় আন্তর্জাতিক ভুট্টা ও গম উন্নয়ন কেন্দ্রের উদ্যেগে আন্তর্জাতিক ধান গবেষনা ইনিস্টিটিউট এর সহযোগিতায় এবং ইউএসএইড এর আর্থিক অনুদানে স্থানীয় কৃষকদের মাঝে বীজ বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার সিমিট বাংলাদেশ যশোর অফিসের মাধ্যমে যশোর, নড়াইল, ঝিনাইদহ, চুয়াডাঙ্গা এবং মেহেরপুর জেলায় মাঠ পর্যায়ে স্থানীয় পাঁচটি বীজ উৎপাদনকারী কোম্পানীকে ব্রি-ধান ৮৭ জাতের বীজ প্রদান করা হয়।প্রদানকৃত বীজ কোম্পানী তাদের নিজস্ব কৃষকদের মধ্যে বিতরণ করা হয়। যশোরের কৃষি উন্নয়ন কেন্দ্র, নড়াইলের উজিরপুর অর্গানিক মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ, ঝিনাইদহের ফ্রেন্ডস সীড, চুয়াডাঙ্গার মর্ডান এগ্রো প্রাইভেট লিঃ এবং মেহেরপুরের স্কয়ার সীড কে এই কার্যক্রমের আওতাভুক্ত করা হয়েছে। সিসা ফেজ-থ্রি-প্রকল্প মূলত অত্র অঞ্চলে উন্নত ও নতূন জাতের ধান কৃষক পর্যায়ে উৎপাদনবৃদ্ধি ও বাজার সম্প্রসারণ নিয়ে কাজ করে । সেই লক্ষ্যে বীজ কোম্পানীর প্রায় ৭ হেক্টর জমিতে ৫০ জন কৃষকের মাঝে বীজ উৎপাদনের জন্য ব্রি-ধান ৮৭ প্রদান করা হয়। এই জাতটি মূলত একটি চিকন জাতের ধান যার জীবনকাল ১২৭ দিন এবং উপযুক্ত পরিবেশে ফলন প্রতি হেক্টরে ৬.৫ টন পর্যন্ত হয়।সিমিট বাংলাদেশ যশোর অঞ্চলের কো-অর্ডিনেটর ড. খন্দকার শফিকুল ইসলাম জানান, এই জাতের ধানের চাষ কৃষক পর্যায়ে শস্য নিবিড়তা বৃদ্ধি এবং সঠিক শস্য পর্যায় বজায় রাখতে সহায়ক হিসাবে কাজ করবে এছাড়া বীজ উৎপাদনে বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সীর উৎপাদন পদ্ধতি অনুসরণে কোম্পানী গুলির সঙ্গে সিসা প্রকল্প কৃষক পর্যায়ে কারিগরী সহায়তা প্রদান করবে। আশা করা যাচ্ছে, ব্রি-ধান ৮৭ কৃষক পর্যায়ে ব্যপক উৎসাহ জোগাবে এবং চাষাবাদ ক্রমশ বিস্তার লাভ করবে।