যবিপ্রবির ছাত্রকে প্রহার, আটক ১


মোসাব্বির হোসাইন, যবিপ্রবি :
তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি (ইএসটি) বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী শরীফ উদ্দিনকে মারধর করেছে চৌগাছার টেঙ্গুরপুর এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার চৌগাছা থানায় টেঙ্গুরপুরের বাসিন্দা শওকত খাঁ, তার ছেলে মোহাম্মদ আলী খাঁ এবং ভাইপো ইব্রাহিম আলী খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী হাজরাখানা এলাকার মনসুর আলীর ছেলে শরীফ উদ্দিন। পুলিশ শওকতকে আটক করেছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২৯ জুন সোমবার শরীফ টিউশনের জন্য চৌগাছায় সাইকেলে যাচ্ছিল। পথে দামোদার বটতলা নামক স্থানে শরিফের সাইকেলের সামনে শওকত খাঁর সাইকেল আসলে দুইজনই থেমে যায়। এই নিয়ে শওকত খাঁর সাথে শরীফের কথা কাটাকাটি হয়। পরে শরীফ সেখান থেকে চলে গেলে পরের দিন মঙ্গলবার টিউশনির জন্য চৌগাছায় যাওয়ার সময় হাজরাখানা পৌঁছালে শওকত খাঁ, তার ছেলে আর ভাইপো মিলে তাদের বাড়ির সমানে নিয়ে বাশেঁর লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এরপরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসে। শরীফের বাবা মনসুর আলী এবং শরীফের ভাই শওকতের কাছে ঘটনা জানতে চাইলে তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং মারার হুমকি দেয়।
পুলিশ এসআই কাওছার জানান, গত বৃহস্পতিবার শরিফ উদ্দিনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে শুক্রবার শওকত খাঁকে তার বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার ছেলে ও ভাইপোকে পাওয়া যায়নি। অভিযুক্ত শওকত এখন পুলিশ হেফাজতে আছে এবং অভিযুক্ত আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।