দেবহাটায় বিয়ের প্রলোভনে এক সন্তানের জননীকে ধর্ষণ

দেবহাটা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : দেবহাটায় বেড়াতে গেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় আসামি করা হয়েছে উপজেলার দেবহাটা গ্রামের হামিদ সরদারের ছেলে কামরুল ইসলাম (২৬) ও তার ভগ্নিপতি উপজেলার চালতেতলা গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে আলতাফ হোসেন (৪২)।

গৃহবধূ দায়েরকৃত এজাহারে উল্লেখ করেছেন, যশোরের মণিরামপুর উপজেলার কামালপুর গ্রামের গৃহবধূ তিনি দেবহাটা শহরে ফুফার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সেখানে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কামরুল ইসলাম প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। তাকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরি শেষে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য করেন। এরপর চলতি বছরের জুন মাসে তার ফুফা স্বপরিবারে বেড়াতে গেলে তার বাড়িতে ফের দৈহিক মেলামেশা করেন। এ সময় তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখানো হয়।

পরবর্তীতে বিয়ের জন্য বললে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। এরপর তিনি কামরুলের বাড়িতে গেলে তার ভগ্নিপতি মামলার ২ নম্বর আসামি আলতাফ তাকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন। এ ঘটনায় তিনি থানায় মামলা করেন।

দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহা মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভিকটিমকে মেডিকেলের জন্য সাতক্ষীরা প্রেরণ করা হয়েছে এবং আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত আছে।