টাউনহল মাঠের মাছ ব্যবসায়িরা  পেলেন ত্রিপল ছাউনি

মিরাজুল কবীর টিটো : যশোর টাউন হল মাঠের মাছ ব্যবসায়ীদের জন্য ত্রিপল দিয়ে দোকান তৈরি করে  দিয়েছে পৌরসভা । ২২০ ফিট লম্বা ২৮ ফিট চওড়া ত্রিপলের নিচে ৭০টি দোকানে ১৫০ জন ব্যবসায়ী মাছ বিক্রি করতে পারবেন । আজ থেকে ত্রিপলের নিচে ব্যবসায়ীরা মাছ বিক্রি করবেন বলে জানান মাছ বাজার কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ পদ বিশ্বাস । এর আগে গত ১৫ মে ত্রিপল দিয়ে দোকান বানিয়ে দেয়া হয়। ২০ মে আম্পান ঝড়ে ত্রিপল লন্ডভন্ড হয়ে যায়। তারপর থেকে ব্যবসায়ীরা পলিথিন ঝুলিয়ে রোদ বৃষ্টির মধ্যে মাছ বিক্রি করছিলেন।

মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমন কমাতে যশোর জেলা প্রশাসন ও যশোর পৌরসভার উদ্যোগে  এইচএমএম আলী রোডের বড় মাছ বাজার ও সবজি বাজার স্থানান্তর করা হয়। গত ৬ মে টাউন হল মাঠে মাছ বাজার ও ঈদগাহ মাঠে বসানো হয় সবজি বাজার। টাউন হল মাঠে মাছ বাজার বসানোর আটদিন পর ১৫ মে ব্যবসায়ীদের দাবির প্রেক্ষিতে পৌরসভার উদ্যোগে ত্রিপল দিয়ে বানিয়ে দেয়া হয় ৪০টি দোকান। সেখানে মাছ বিক্রি করছিলেন ১২০ জন ব্যবসায়ী । কিন্তু সে দোকানগুলো বেশি দিন  স্থায়ী হয়নি। রোদ বৃষ্টি হলে ক্রেতাদের দাড়ানোর জায়গা না থাকায় মাছ বিক্রি কম হচ্ছে। এ কারনে ব্যবসায়ীরা পূর্বের স্থানে ফিরে যাওয়ার দাবি জানায়। দাবির প্রেক্ষিতে যশোর পৌরসভা পৌরসভার উদ্যোগে পুনরায় ত্রিপল শেড বানিয়ে দেয়া হয়েছে। আর ব্যবসায়ীরা নিজেরাই টাকা খরচ করে ইটের সলিং করে নিয়েছেন।

মাছ ব্যবসায়ী রুবেল বিশ^াস জানান, ত্রিপল দিয়ে দোকান বানিয়ে দিয়ে ব্যবসায়ীদের জন্য ভাল হয়েছে। বৃষ্টি হলে ত্রিপলের নিচে দাড়িয়ে ক্রেতারা মাছ কিনতে পারবেন। ফলে মাছ বিক্রি আগের চেয়ে ভাল হবে। শফিকুল ইসলাম নামে আরেক মাছ ব্যবসায়ী জানান, ত্রিপলের নিচে শান্তিতে মাছ বিক্রি করা যাবে। রোদের তাপে ও বৃষ্টিতে ভিজে ব্যবসায়ীদের কষ্ট করতে হবে না। বরফে মাছ রাখা যাবে,রোদ্রের তাপে বরফ গলে মাছ নষ্ট হয়ে যাবে না।

মাছ বাজার কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ পদ বিশ্বাস জানান এর আগে পৌরসভা থেকে যেভাবে ত্রিপল দিয়ে দোকান বানিয়ে দেয়া হয়েছে, তার চেয়ে এবার আরো মজবুত ভাবে বানিয়ে দিয়েছে। সহজে এ দোকানগুলো আর ভাঙ্গবে না। এখানেই ব্যবসায়ীরা মাছ বিক্রি করতে পারবে। অন্য জায়গায় যেতেও হবে না।