চৌগাছায় সুদে টাকা নিয়ে প্রতারিত ব্যবসায়ীর সংবাদ সম্মেলন

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছায় মিঠু নামের এক ব্যক্তির কাছে সুদে টাকা নিয়ে প্রতারিত হয়েছেন মুসলিম জুয়েলারীর মালিক হায়দার আলী।

মঙ্গলবার দুপুরে চৌগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি এ অভিযোগ করেন। মিঠু শহরের জামতলা এলাকার আহম্মদ আলীর ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে হায়দার আলী লিখিত বক্তব্যে বলেন,  ২০১০ সালে ব্যবসায়ী প্রয়োজনে ন্যাশনাল ব্যাংক চৌগাছা শাখার তিনটি ব্লাঙ্ক (সাদা) চেক জামানত রেখে সুদে মিঠুর নিকট থেকে ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিই। ২০১৬ সালে আমার চৌগাছা পৌর শহরের নিরিবিলিপাড়ার নিজের ভিটা বাড়ি বিক্রি করে প্রতিমাসে ৪০ হাজার টাকা সুদ হিসেবে  ৬ বছরে ২৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা পরিশোধ করেছি।

এ সময় পৌর শহরের হুদা চৌগাছা গ্রামের মৃত এরশাদ সর্দারের ছেলে স্থানীয় (মহুরী) দলীল লেখক রেজাউল ইসলামসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতে মিঠুর নিকট থেকে দাদন নেয়া ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করি।

টাকা ফেরত দেয়ার সময় তিনি আমাকে বলেন তোমার জামানত রাখা চেকের মধ্যে ১টি চেক হারিয়ে গেছে। বাকি ২টি চেক আমার নিকট ফিরিয়ে দেন।

আমার নিকট থেকে জামানত রাখা ন্যাশনাল ব্যাংক চৌগাছা শাখার সেই চেক যার নং ৫৮১৯৫৪৮ ব্যবহার করে আমার নামে একটি লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করেছে। নোঠিশে সে আমার নিকট বর্তমানে আরো ১১ লাখ টাকা পাবে বলে দাবি করছেন।

তিনি আরো বলেন, শুধু আমি ভিটে ছাড়া হয়নি সুদে মিঠুর অত্যাচারে সর্বশান্ত হয়েছেন উপজেলার শত শত মানুষ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা বাজার জুয়েলারি সমিতির সভাপতি বাবু অনন্ত সরকার, সাধারণ সম্পাদক দিদার হোসেন ডাবলু, ব্যবসায়ী ফারুক হোসেন, স্বরুপদহ ইউপি মেম্বর জাকির হোসেন খান, ফখরুজ্জামান, নারায়ন মন্ডল, বাবুল হোসেন প্রমুখ।