হোল্ডারের বোলিং তোপে ২০৪ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড

স্পন্দন স্পোর্টস ডেস্ক : সিরিজ শুরুর আগে খানিকটা অভিমান করেই নিজের প্রাপ্য সম্মান না পাওয়ার কথা বলেছিলেন জেসন হোল্ডার। মূলত ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে নিয়ে অতিরিক্ত মাতামাতির দিকেই ইঙ্গিত ছিল তার। মাঠের খেলায় অবশ্য ঠিকই নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিলেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক। এই ডানহাতি পেসারের বোলিং তোপেই মাত্র ২০৪ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড।

করোনাকালে বদলে যাওয়া ক্রিকেট নিয়ে হাজির হয়েছে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দর্শকশূন্য মাঠে জীবাণুমুক্ত পরিবেশে ক্রিকেট ফেরা নিয়ে ক্রিকেটভক্তদের আগ্রহের কমতি ছিল না। কিন্তু সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথমদিন বুধবার (৮ জুলাই) বৃষ্টি বাগড়ায় খেলা হয় মাত্র ১৭.৪ ওভার। টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নেওয়া ইংলিশরা তাতে করতে পারে ১ উইকেট হারিয়ে ৩৫ রান।

প্রথমদিন তেমন আহামরি কিছু করার সুযোগ না পাওয়া ক্যারিবীয়রা সব ঝাল মেটালো দ্বিতীয় দিনে। আর তাতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখলেন খোদ হোল্ডার। আর তাকে যোগ্য সঙ্গ দিলেন আরেক পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। হোল্ডার একাই নিয়েছেন ৬ উইকেট। গ্যাব্রিয়েলের ঝুলিতে গেছে বাকি ৪ উইকেট।

আগেরদিন ইংলিশদের প্রথম উইকেট তুলে নিয়েছিলেন গ্যাব্রিয়েল। দ্বিতীয় দিনেও শুরুটা তিনিই করলেন। জো ডেনলি (১৮) ও রোরি বার্নস (৩০) দুজনেই তার শিকার। অর্থাৎ, ইংলিশদের টপ অর্ডারের প্রথম ৩ উইকেটই এই ত্রিনিদাদে জন্মগ্রহণকারী পেসারের। এরপর শুরু হোল্ডার ঝলক। পরের ৬ উইকেট একাই তুলে নিয়েছেন তিনি। শেষ উইকেট জেমস অ্যান্ডারসনকে (১০) বোল্ড করে নিজের চতুর্থ উইকেট হাসিল করেন গ্যাব্রিয়েল।

ক্যারিবীয় পেসের দাপটে ক্রিজে টিকতে গিয়ে রীতিমত খাবি খেয়েছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। ফিফটির দেখা পাননি কোনো ব্যাটসম্যানই। সর্বোচ্চ ৪৩ রান এসেছে ইংলিশদের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক স্টোকসের ব্যাট থেকে। অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান জস বাটলার করেছেন ৩৫ রান। আর ক্যারিবীয় পেস সামলাতে গিয়ে বেশ কয়েকবার আহত হওয়া ডম বেস ৩১ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন।

বল হাতে মাত্র ২০ ওভারে ৪২ রান খরচে ৬ উইকেট নিয়েছেন হোল্ডার। রান খরচ করেছেন ওভার পিছু ২.১০ করে। এটাই এই বারবাডোজ বোলারের সেরা টেস্ট বোলিং পারফরম্যান্স।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে বিনা উইকেটে ৪ রান তুলেছে উইন্ডিজ।