সাহেদকে ১০ দিনের রিমান্ডে চাইবে ডিবি

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : করোনা চিকিৎসার নামে প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার রিজেন্টের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে ১০ দিনের রিমান্ডে চাইবে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার সকালে সাহেদকে আদালতে তুলে এ রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

বুধবার (১৫ জুলাই) ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানান, রিজেন্টের প্রতারণার মামলাটি ডিবি তদন্ত করছে। মামলার প্রধান আসামি রিজেন্টের চেয়ারম্যান সাহেদ বর্তমানে ডিবি হেফাজতে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হবে। সাহেদকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হবে।

গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের পরই আত্মগোপনে যান প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। টানা ৯ দিনের নজরদারি শেষে বুধবার (১৫ জুলাই) ভোরে র‌্যাবের বিশেষ অভিযানে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কোমরপুর গ্রামের লবঙ্গবতী নদীর তীরে সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর সকালে গ্রেফতার সাহেদকে সাতক্ষীরা থেকে র‌্যাবের আভিযানিক দলের সঙ্গে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় আনা হয়।

অভিযানে অংশ নেওয়া র‌্যাবের কর্মকর্তারা জানান, সাহেদ নৌকাযোগে স্থানীয় দালালের সহায়তায় সীমান্ত পেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। নিজেকে আড়ালের কৌশল হিসেবে তিনি বোরখা পরিহিত অবস্থায় ছিলেন এবং নিজের গোঁফ কেটে ফেলেন।

এদিন দুপুরে সাহেদকে সঙ্গে নিয়ে উত্তরার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জাল টাকা উদ্ধার করে র‌্যাব। র‌্যাব সদর দপ্তরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার বিকেলে সাহেদকে মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

র‌্যাব সদর দপ্তরে আনার পর বহুল আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতাল প্রতারণা মামলার প্রধান আসামি প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সাহেদকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপর বিকেলে র‌্যাবের একটি টিম গ্রেফতার সাহেদকে রাজধানীর মিন্টু রোডে ডিবি কার্যালয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করে।