অস্ত্র হাতে একাই তালেবান জঙ্গিদের রুখে দিলো আফগান কিশোরী

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দুই তালেবান জঙ্গিকে গুলি করে মেরে ‘বীরত্ব’ দেখানোয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে এক আফগান কিশোরী।

ওই জঙ্গিরা কিশোরীর মা-বাবাকে হত্যা করেছিল।

আফগানিস্তানের ঘোর প্রদেশের স্থানীয় এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, ১৭ জুলাই রাতে তালেবান জঙ্গিদের দলটি ওই কিশোরীর বাড়িতে হামলা চালায়। জঙ্গিদের গুলিতে কিশোরীর মা ও বাবা মারা যায়। তখন ঘরের ভেতর থেকে ছোট ভাইকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করে সে।

পরিবারের একে-৪৭ রাইফেল দিয়ে তালেবান জঙ্গিদের লক্ষ্য করে সে পাল্টা হামলা চালায়। এতে দুই জঙ্গি নিহত এবং আরও কয়েকজন আহত হয়।

তালেবান জঙ্গিরা ওই কিশোরীর বাড়িতে হামলা চালিয়েছিল কারণ তার বাবা সরকার সমর্থক ছিলেন।

এ ঘটনার পর অস্ত্র হাতে কিশোরীর একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে অনেকেই কিশোরীর ‘বীরত্বের’ প্রশংসা করেছেন।

পরে তালেবানরা আবারও ওই বাড়িতে হামলা চালানোর চেষ্টা করলেও গ্রামবাসী এবং সরকার সমর্থিত সেনাদের বাধার মুখে তারা পিছু হটে।

জানা গেছে, ওই কিশোরীর বয়স ১৪ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। তাকে এবং তার ছোট ভাইকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলের সবচেয়ে অনুন্নত প্রদেশ ঘোর এবং সেখানে নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতার হার অন্য অঞ্চলের তুলনায় বেশি।