প্রতারক সাহেদকে নিয়ে  দেবহাটা সীমান্তে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  : বহুল আলেচিত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান, প্রতারক সাহেদ করিমকে নিয়ে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার শাখরা কোমরপুর সীমান্তে আটকের স্থান পরিদর্শন করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টার দিকে র‌্যাব সদস্যরা নিরাপত্তাবেষ্টনির মধ্য  দিয়ে একটি সিলভার রঙের মাইক্রোবাসযোগে তাকে খুলনা র‌্যাব-৬ এর কার্যালয় থেকে সাতক্ষীরায় আটকের স্থানে নিয়ে আসা হয়। মাইক্রোবাস থেকে প্রতারক সাহেদ করিমকে গাড়ি থেকে নামানো হয়। প্রায় আধাঘণ্টা তাকে নিয়ে বেইলি ব্রিজের উপর ঘোরাফেরা করে র‌্যাব সদস্যরা। এর পর উৎসুক সাধারণ মানুষ এবং স্থানীয় সাংবাদিকদের ব্রিজ থেকে নির্দিষ্ট দূরত্বে সরিয়ে কিছু সময়ের পর সাহেদকে গাড়িতে ওঠায়। এ সময় সাহেদের মুখমন্ডল ছিল হেলমেটে ঢাকা, গায়ে ছিল গেঞ্জি ও র‌্যাবের নিরাপত্তা জ্যাকেট। ব্রিজের ওপর থেকে আবার গাড়িতে করে খুলনায় রওনা দেয় র‌্যাব। তদন্তের স্বার্থে র‌্যাব উপস্থিত সংবাদকর্মীদের কোনো ধরনের প্রশ্ন না করার আহবান জানান।

প্রসঙ্গত .২০ জুলাই সাহেদ করিম দেবহাটা উপজেলার শাখরা কোমরপুরের লাবর্ণবর্তী খাল দিয়েই ভারতে পাড়ি জমানোর চেষ্টা করে। লাবর্ণবতী ব্রীজের নীচ থেকে র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক করে। এ সময় তার কাছ থেকে একটি পিস্লল ও কয়েক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। পরে তাকে র‌্যাব হেড কোয়াটারে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার দিন রাতে সাহেদের নামে দেবহাটা থানায় অস্ত্র আইনে সাহেদ করিমকে প্রধান আসামি করে র‌্যাবের উপসহকারী পরিচালক নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেন।

সাতক্ষীরার দেবহাটা থানায় দায়েরকৃত মামলায় গত ২৬ জুলাই ভার্চুয়াল আদালতে সাহেদ করিমের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে র‌্যাব । সাতক্ষীরার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রাজিব কুমার রায় ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করে।