কোটচাঁদপুর থেকে সেনাকর্মকর্তা পরিচয়দানকারীকে আটক করলো পিবিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ছয়খাদা গ্রাম থেকে সেনা কর্মকর্তা পরিচয়দানকারী আলমগীর হোসেন ওরফে আশিকুর রহমান রাব্বিকে (২৭) আটক করেছে যশোরের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। একজন কলেজছাত্রীর সাথে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা ও ল্যাপটপ হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় গত সোমবার তাকে আটক করা হয়। মঙ্গলবার তাকে যশোরের আদালতে সোপর্দ করা হলে তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাহাদী হাসান তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আটক প্রতারক আলমগীর হোসেন ওরফে আশিকুর রহমান রাব্বি কোটচাঁদপুর উপজেলার ছয়খাদা গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে। কয়েক মাস আগে হামিদা খাতুন নামে একজন কলেজছাত্রী যশোর থেকে ট্রেনে করে কোটচাঁদপুর যাওয়ার সময় পথে তার সাথে পরিচয় হয়। হামিদা খাতুন মহেশপুর উপজেলার আলমপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে। তিনি যশোরের একটি কলেজে পড়াশুনা করেন। পরিচয়কালে আশিকুর রহমান রাব্বি ওই কলেজছাত্রীর কাছে নিজেকে সেনা বাহিনীর ক্যাপ্টেন হিসেবে পরিচয় দেন। এরপর থেকে দু জনের মধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা  হতো। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মধ্যে পারিবারিক আর্থিক সমস্যার কথা বলে আশিকুর রহমান রাব্বি ফিরিয়ে দেওয়ার শর্তে হামিদা খাতুনের কাছে ৮০ হাজার টাকা চান। ফলে সোনার অলঙ্কার বিক্রিসহ বিভিন্নভাবে ৮০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি হামিদা খাতুন তাকে দেন। যশোর এমএম কলেজের দক্ষিণ গেট সংলগ্ন রূপরেখা ছাত্রী মেসের সামনে এসে আশিকুর রহমান রাব্বি তার কাছ থেকে টাকা নিয়ে যান। এর দুইদিন পর এ প্রতারক অফিসের প্রয়োজনের কথা বলে যশোরে এসে ওই ছাত্রীর একটি ল্যাপটপও ধার হিসেবে নিয়ে যান। এক মাসের মধ্যে টাকা ও ল্যাপটপ ফিরিয়ে দেয়ার কথা ছিলো। কিন্তু নির্ধারিত সময় পার হয়ে গেলে টাকা ও ল্যাপটপ ফেরত চাইলে প্রতারক আশিকুর রহমান রাব্বি তাকে ঘোরাতে থাকেন। এরপর গত ১২ জুন কলেজছাত্রী হামিদা খাতুন টাকা ও ল্যাপটপের জন্য প্রতারক আশিকুর রহমান রাব্বিকে মোবাইল ফোন করলে তিনি তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। সূত্র জানায়, ওই প্রতারক শুধু নিজেকে সেনা কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় নয়, সেনা বাহিনীর পোশাক পরা তোলা ছবি কলেজছাত্রীকে দেখিয়েছেন। প্রতারিত হওয়ার পর হামিদা খাতুন খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, আশিকুর রহমান রাব্বি যশোর সেনানিবাসে ২০০৮ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত মালি পদে চাকরি করতেন।

সূত্র আরও জানায়, প্রতারিত হওয়ার পর কলেজছাত্রী ঘটনাটি লিখিতভাবে পিবিআইকে জানিয়েছিলেন। এর প্রেক্ষিতে পিবিআই গত সোমবার ভোরে কোটচাঁদপুরের ছয়খাদা গ্রামে অভিযান চালিয়ে সেনা কর্মকর্তা পরিচয়দানকারী প্রতারক আশিকুর রহমান রাব্বিকে আটক করে। এ সময় তার কাছ থেকে কলেজছাত্রীর ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়। পরে একইদিন এ ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলা করা হয়। এরপর মঙ্গলবার আটক আশিকুর রহমান রাব্বিকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ সময় তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। পরে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।