জার্মানির বড় শহরের এক চতুর্থাংশ নারী যৌন লাঞ্ছনার শিকার

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  জার্মানির বড় শহরগুলোতে নারীরা আর নিরাপদ বোধ করছেন না। বাইরে বের হলেই তারা মৌখিক বা শারীরিক লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন।

নতুন সমীক্ষা বলছে, দেশটির বড় শহরগুলোতে প্রতি চারজনের মধ্যে একজন নারী যৌন লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন। হামবুর্গ, বার্লিন, কোলন, মিউনিখের মতো শহরগুলোর প্রত্যেক নারীই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

সম্প্রতি প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের জার্মান শাখা এই সমীক্ষা চালিয়েছে।

বড় শহরগুলোর বিভিন্ন জায়গা চিহ্নিত করে নারীদের প্রশ্ন করা হয়েছে, ওই জায়গাগুলোয় তারা নিরাপদ বোধ করেন কি না। ১৬ থেকে ৭১ বছর বয়সী প্রায় এক হাজার নারীর মধ্যে ৮০ শতাংশ জানিয়েছেন, পার্কে জগিং করতে গিয়ে, অল্প আলোর রাস্তায় হাঁটতে গিয়ে, রাস্তায় চলাফেরার সময় খারাপ কথা শুনতে হয়েছে, ইচ্ছাকৃতভাবে গায়ে হাত দেওয়া হয়েছে। ওই জায়গাগুলো কিছুতেই নিরাপদ নয়।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল জার্মানির পরিচালক জানিয়েছেন, জার্মানিতে মেয়েরা নিজের শহরকে নিরাপদ ভাবছে না। আমাদের সমীক্ষা এটাই দেখিয়েছে। প্রায় প্রত্যেকেই বলেছেন, তার আশপাশ নিরাপদ নয়। চারজনের মধ্যে একজন যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক।

সমীক্ষায় উঠে এসেছে, মাদকসেবীদেরই বেশি ভয় পাচ্ছেন মেয়েরা। কারণ হেনস্থার কাজ মাতালরাই বেশি করে থাকেন।

অন্ধকার নেমে এলেই নারীরা হেনস্থার মুখে পড়েন। এক হাজার ১৪ জনের মধ্যে ৮০৬ জনই এমন কথা বলেছেন। আর ২০৮ জন বলেছেন, দিনের বেলাতেও তারা যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন।

সংস্থাটি দিল্লি, সিডনি, লিমা ও মাদ্রিদেও একই ধরনের সমীক্ষা চালিয়েছে। সেসব শহরের নারীরাও বলেছেন, নিজের শহরকে তারা আর নিরাপদ মনে করছেন না। সূত্র: ডয়েচেভেলে