রওশন আলী ও টিপু সুলতান কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শচ্যুত হননি : মিলন


নিজস্ব প্রতিবেদক:
যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন বলেছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক সভাপতি মরহুম রওশন আলী এবং অ্যাডভোকেট খান টিপু সুলতান ছিলেন আজন্ম সংগ্রামী। দলের জন্য তাদের ত্যাগ অনেক। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুর পরে এই দুইজন নেতা দলের নেতৃত্ব দিতে গিয়ে অনেক নির্যাতন সহ্য করেছেন, জেল খেটেছেন। তারপরও তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যুত হননি। তাই দলের সকল নেতাকর্মীকে তাদের আদর্শ ধারণ করে রাজনীতি করতে হবে।
মরহুম রওশন আলী ও অ্যাডভোকেট খান টিপু সুলতান স্মরণে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বুধবার ২ নম্বর আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আলী রায়হানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হায়দার গণি খান পলাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, সাবেক প্রচার সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক হারুন অর রশীদ, সাবেক শ্রম সম্পাদক কাজী আব্দুস সবুর হেলাল, সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সুখেন মুজুমদার, সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল, আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম রওশন আলীর ছেলে আবু সেলিম রানা, কামরুজ্জামান চৌধুরী, সাবেক উপদফতর সম্পাদক ওহিদুল ইসলাম তরফদার,সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য মেহেদী হাসান মিন্টু, শহর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ ফিরোজ খান, অ্যাডভোকেট সৈয়দ কবীর হোসেন জনি, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মঈনুদ্দিন মিঠু, জেলা শ্রমিকলীগ নেতা নাসির উদ্দীন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল, জেলা যুবমহিলা লীগের সভাপতি মঞ্জুন্নাহার নাজনীন সোনালী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্মসম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু, জেলা ছাত্রলীগ নেতা রিফাতুজ্জামান, আরাফাত রহমান বাসেদ,সরকারি এমএম কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি ইমরান হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ফারুক আহমেদ কচি।