চলে গেলেন আকিজ গ্রুপের পরিচালক শেখ মমিন উদ্দিন সিআইপি


নিজস্ব প্রতিবেদক:
আকিজ গ্রুপের অন্যতম পরিচালক, গোল্ডেন আকিজ ফুটওয়্যার ও দেশের অন্যতম রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান এসএএফ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিশিষ্ট শিল্পপতি শেখ মমিন উদ্দিন (৬৩) ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি……রাজেউন)। সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি ঢাকার আদ্-দ্বীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি দেশের অন্যতম শিল্প গ্রুপ আকিজ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম সেখ আকিজ উদ্দিনের দ্বিতীয় পুত্র। এসএএফ’র জেনারেল ম্যানেজার আবুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
মঙ্গলবার সকাল ১০টায় যশোরের অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া বাজারে এসএএফ এর প্রতিষ্ঠানে মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা হবে। বেলা ১১টার দিকে খুলনার ফুলতলা উপজেলার বেজেরডাঙ্গা এলাকায় হবে দ্বিতীয় জানাজা। এরপর তার পিতার পাশে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে।
এসএএফ’র জেনারেল ম্যানেজার আবুল ইসলাম জানিয়েছেন, মমিন উদ্দিন ঢাকার মগবাজার এলাকায় আদ্-দ্বীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রোববার তার ফুসফুসের অবস্থা ভাল ছিল না। তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি সোমবার মারা যান। আদ্-দ্বীন হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. শেখ মহিউদ্দিন তার বড় ভাই। তার আরেক ভাই শেখ আফিল উদ্দিন যশোর-১ (শার্শা) আসনের সংসদ সদস্য।
শেখ মমিন উদ্দিন গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেছেন। অভয়নগরে নওয়াপাড়া রাজঘাট জাফরপুর হাইস্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। খুলনা বিএল কলেজ থেকে বিএসসি পাস করে ইংল্যান্ডে যান। সেখানকার নর্থ হ্যামটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেদার টেকনোলজিতে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন। আশির দশকে মমিন উদ্দিন অভয়নগর উপজেলার তালতলার পরিত্যক্ত এসএএফ চামড়া কারখানার দায়িত্ব নেন। এরপর তিনি রুগ্ন ওই কারখানাটিকে আধুনিকীকরণ করে দেশের শ্রেষ্ঠ চামড়া কারখানায় পরিণত করেন। ২০০৯, ২০১০, ২০১১ সালে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য বিদেশে রফতানির জন্য তিনি জাতীয় রফতানি ট্রফি (স্বর্ণ) অর্জন করেন। যে কারণে তিনি কমার্সিয়াল ইম্পরটেন্ট পার্সন (সিআইপি) কার্ডধারী হন। মমিন উদ্দিন এই চামড়া কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং আকিজ গ্রুপের অন্যতম পরিচালক। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন মেয়ে ও এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, আফিল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ আফিল উদ্দিন এমপি, যশোর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, শার্শা উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল হক মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান, যুবলীগের সভাপতি ওহিদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, উপজেলার ছাত্রীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রাসেল,উপজেলার ডিহি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হোসেন আলী, বেনাপোল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বজলুর রহমান, পুটখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাদিউজ্জামান, গোগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, কায়বা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাসান ফিরোজ আহমেদ টিংকু, বাগআঁচড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইলিয়াছ কবির বকুল, উলাশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ আয়নাল হক, শার্শা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন এবং নিজামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ।