যশোরে করোনা আক্রান্ত ৩ হাজার ছুঁই ছুঁই


বিল্লাল হোসেন:
যশোরে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩ হাজার ছুঁই ছুঁই হয়েছে। সোমবার এক চিকিৎসকসহ নতুন করে ৯০ জন শনাক্তের মধ্য দিয়ে এই পর্যন্ত জেলায় করোনা রোগী শনাক্ত হলো ২৯৩২ জন। এছাড়া ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবারের ফলাফলে পজেটিভ শনাক্ত হওয়া মৃত ব্যক্তির নাম আব্দুল্লাহ বারী (৯০)। তিনি বারান্দীপাড়ার অম্বিকা বসু লেনের বাসিন্দা ছিলেন। তার স্ত্রী জাকারিয়া খাতুনের (৭৫) করোনা শনাক্ত হয়েছে।
সিভিল সার্জন অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তা ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, সোমবার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জেনোম সেন্টার থেকে পাঠানো ১৪১ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ৪৩ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়। এছাড়া খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (খুমেক) আরও ২৪০ জনের ফলাফল আসে। সেখানে ৪৭ জন করোনায় শনাক্ত বলে উল্লেখ করা হয়েছে। দুই ল্যাবে শনাক্ত হওয়া ৯০ জনের মধ্যে যশোর সদর উপজেলায় ৭৩ জন, শার্শা উপজেলায় ৩ জন, ঝিকরগাছা উপজেলায় ৫ জন, চৌগাছা উপজেলায় ১ জন, মণিরামপুর উপজেলায় ১ জন, কেশবপুর উপজেলায় ৬ জন ও অভয়নগর উপজেলায় ১ জন। ডা. রেহেনেওয়াজ আরো জানান, এদিন নতুন করে ৪৫ জন সুস্থ হয়েছেন। জেনোম সেন্টারে পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠানো হয়েছে ১১২ জনের।
যশোর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আদনান ইমতিয়াজ জানিয়েছেন, নতুন করে আক্রান্ত ৭৭ জনের মধ্যে ১ জন চিকিৎসক রয়েছেন। তার নাম প্রিয়াঙ্কা সরকার। তিনি যশোর শহরের ঘোপ জেলরোডে বসবাস করেন। তার কর্মস্থল হলো ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। তিনি আরো জানান, আব্দুল্লাহ বারী ও তার স্ত্রী জাকারিয়া খাতুনের গত ২২ আগস্ট সকাল নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এদিন বিকেলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন আব্দুল্লাহ বারী। স্বজনরা তাকে শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তার স্ত্রী হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
যবিপ্রবির অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও পরীক্ষণ দলের সদস্য ড. তানভীর ইসলাম জানিয়েছেন, জেনোম সেন্টারে যশোর জেলার ৬০ জন ছাড়াও নড়াইল জেলার ৬১ জনের নমুনা পরীক্ষা ১৪ জনের শরীরে কোভিডের জীবাণু পাওয়া গেছে। সবমিলিয়ে ২০২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জনের করোনা পজিটিভ এবং ১৪৫ জনের নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, সোমবার পর্যন্ত জেলার ১২৪০৬ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। ফলাফল এসেছে ১১২৪০ জনের। এরমধ্যে করোনা পজেটিভ ২৯৩২জন। সুস্থ হয়েছেন ১৭৮১ জন। এছাড়া ৩৯ জন মারা গেছেন। এরমধ্যে ২ জন খুলনার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তারা খুলনার হিসেবে রয়েছেন। যশোরের হিসেবে রয়েছেন ৩৭ জন।