তালায় মহিলাকে পিটিয়ে হত্যা !


তপন চক্রবর্তী, তালা (সাতক্ষীরা) :
স্বামীকে মারপিটের প্রতিবাদ করতে যাওয়ায় সাতক্ষীরার তালায় নাসিমা বেগম (৩৮) নামে এক মহিলাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ সাত জনকে আটক করেছে।
মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) সকালে তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের মহান্দী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে তালা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,পাট চুরির অভিযোগ এনে গত (২৩ আগস্ট) রোববার সকালে নিহতের স্বামী নাজের শেখকে মারপিট করে মনিরুল মোড়ল। এ ঘটনার জের ধরে নাসিমা প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে বেধড়ক মারপিট করে। এতে তিনি মারাত্মক আহত হয়।
নিহত নাসিমা বেগম মহান্দী গ্রামের নাজের শেখ’র স্ত্রী।
নিহতের স্বামী নাজের শেখ জানান, সোমবার বিকেলে তার স্ত্রী মোড়লপাড়ায় ডিপ-টিউবওয়েলে পানি আনতে যায়। সেখানে মনিরুলের কাছে স্বামীকে মারার কারণ জানতে চাইলে নাসিমার সাথে বাকবিতাণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে তার স্ত্রী নাসিমাকে বেধড়ক পিটাতে শুরু করে । মারপিটের কারণে নাসিমা বেগমর মাথা ফেটে অজ্ঞান হয়ে রাস্তায় লুটিয়ে পড়ে। খবর পেয়ে তিনিসহ এলাকাবাসী এগিয়ে গেলে মনিরুলরা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসেন তিনি।
সেখানে গ্রাম্য ডা. শহিদুলকে দিয়ে প্রাথামক চিকিৎসা করানো হয়। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিতে গেলে আক্রমনকারীদের বাঁধার মুখে গুরুত্বর আহত নাসিমাকে বাড়িতেই ফিরিয়ে আনা হয়। মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) সকাল ৮টার দিকে নাসিমা বেগমের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মেহেদী রাসেল জানান, নিহতের মাথায় ক্ষতসহ শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত জনকে আটক করা হয়েছে।