যশোরে ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে গত সোমবার বিকেলে তালাত মাহমুদ সাবু (২৯) এক ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে মারধর ও চাঁদা আদায় করে একটি চক্র। এ ঘটনার সাথে জড়িত শামীম (৩৮) নামে একজনকে মঙ্গলবার সকালে আটক করেছে পুলিশ। শহরের পুরাতন কসবা কাজীপাড়া থেকে তাকে আটক করা হয়।

সদর উপজেলার ইছালী ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের তাইজুল ইসলামের ছেলে তালাত মাহমুদ সাবুর অভিযোগ, শহরের কুইন্স হসপিটালের সামনে তার চা ও সিগারেটের দোকান রয়েছে। গত ১২ সেপ্টেম্বর বিকেলে কাজীপাড়ার আব্দুস সাত্তারের ছেলে রিয়াদ (২৬) তার দোকান থেকে ৩৭ হাজার ২শ’ টাকার সিগারেট বাকিতে নেন। পরে তিনি এই টাকা দাবি করলে তাকে আজ না কাল বলে ঘোরাতে থাকেন। এক পর্যায়ে গত সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তার টাকা পরিশোধের কথা বলে তাকে শহরের চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকার সাতক্ষীরা ঘোষ ডেয়ারির সামনে যেতে বলেন রিয়াদ। পরে তিনি সেখানে গেলে রিয়াদসহ আরও কয়েকজন তাকে জোরপূর্বক একটি ইজিবাইকে উঠিয়ে বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের একটি পুকুরপাড়ে নিয়ে যান। সেখানে তাকে মারধর করে তার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন রিয়াদ। এ সময় অপহরণকারীরা তার কাছে থাকা নগদ ৩ হাজার টাকা কেড়ে নেয়া ছাড়াও মোবাইল ফোনের বিকাশ অ্যাকাউন্টে থাকা ১০ হাজার টাকা একটি নম্বরে (০১৭০৬-৩৮৫৮৫৬) সেন্ড মানি করে নেন। এছাড়া তাকে মারধর করার ভয়ে তার মামা নুর ইসলামকে তিনিও অপহরণকারীদের দেয়া মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টে দু দফায় ৯ হাজার ৯শ’ টাকা পাঠিয়ে দেন।

পুলিশ জানায়, অপহরণকারীদের কবল থেকে ছাড়া পেয়ে তালাত মাহমুদ সাবু মঙ্গলবার সকালে কোতয়ালি থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এ মামলার আসামিরা হচ্ছেন-রিয়াদ, কাজীপাড়ার মৃত মনির হোসেনের ছেলে শামীম, আরবপুরের আব্দুল খালেকের ছেলে বিষে (৩৭) ও একই এলাকার সাগর (৩২)। পুলিশ এজাহারভুক্ত আসামি শামীমকে সকাল ১০টার দিকে তার বাড়ি থেকে আটক করে। পরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।