প্র্যাকটিস বন্ধ তিনদিন, এর মধ্যেই দ্বিতীয়বার করোনা টেস্ট

স্পন্দন স্পোর্টস ডেস্ক :  সারাদিন কোন খবর নেই। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান মধ্যাহ্নে জাগো নিউজকে জানিয়েছিলেন, নাহ! কোনো খবর আসেনি শ্রীলঙ্কা থেকে। বিসিবি থেকেও আজ বুধবার সারাদিন শ্রীলঙ্কা সফরের কোনোই আপডেট নেই।

কিন্তু সন্ধ্যার ঘণ্টা খানেক পর হঠাৎ বোর্ড থেকে বার্তা- আগামীকাল ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর তিনদিন ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন বন্ধ। আর আগে যা কথা ছিল, সে অনুযায়ী আগামী পরশু তথা ১৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ক্রিকেটার, কোচিং ও সাপোর্টিং স্টাফ সবার যথারীরিত করোনা টেস্ট হবে।

তবে কি বরফ গলতে শুরু করেছে? লঙ্কান স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় আর বোর্ড কি নমনীয় হলো? মানে ভেতরে ভেতরে কি দুই বোর্ডের কথা চালাচালি হচ্ছে? টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার সম্ভাবনা কি তাহলে বেড়েছে?

ঢাকার মিডিয়া পাড়ায় হঠাৎ প্রাণচাঞ্চল্য। তবে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি প্রধান আকরাম খানের কথা, ‘না না, এখনও কোন অগ্রগতি নেই। লঙ্কান বোর্ড আমাদের কিছুই জানায়নি এখনো।’

তাহলে যে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে দ্বিতীয়বার করোনা টেস্ট করানো হচ্ছে? আকরামের জবাব, ‘আমরা আমাদের কাজগুলো করে রাখছি। আগে থেকে করোনা টেস্ট করার যে রুটিন তৈরি করে রাখা হয়েছিল, সেটা মেনেই ১৮ সেপ্টেম্বর ক্রিকেটার, কোচ ও সব সাপোর্টিং স্টাফের কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হবে।’

প্রসঙ্গতঃ বিসিবি প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী এই ১৮ সেপ্টেম্বরের করোনা টেস্ট নিয়েই দুপুরে জাগো নিউজের সাথে আলাপে অনেক কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা যাওয়ার আগে আমাদের আরও তিন দফা করোনা টেস্ট করানোর পরিকল্পনা ছিল এবং আছে। যার প্রথম ধাপ হওয়ার কথা ১৮ তারিখ শুক্রবার। তারপর আবার ২১ এবং ২৪ সেপ্টেম্বর পরপর দুবার কোভিড-১৯ টেস্টের কথা ছিল।

এখন যেহেতু জাতীয় দল ঘোষণা হয়নি, তাই দেবাশীষ চৌধুরী সংশয়ে ছিলেন ১৮ সেপ্টেম্বর টেস্ট হবে কি না? কারণ, টেসট করার জন্য তাদের সবার আগে দরকার প্লেয়ার্স লিস্ট। আর সেটা সরবরাহ করার কথা ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির। যেহেতু এখন পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা সফরের টেস্ট দল ঘোষণা হয়নি, তাই দেবাশীষ চৌধুরীর সংশয়- আমরা কাদের টেস্ট করাবো?

কিন্তু বিসিবি মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমামের বার্তায় মনে হলো, অবশ্যই নির্বাচকদের জমা দেয়া খেলোয়াড় তালিকা দেখেই কোভিড-১৯ টেস্ট করা হবে। আর তাই বিসিবির বার্তায় বলা হয়েছে- ‘১৭, ১৮ আর ১৯ সেপ্টেম্বর ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন বন্ধ। ২০ তারিখ থেকে আবার শুরু হবে।’

পূর্ব ঘোষিত সূচিতে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে শ্রীলঙ্কাগামি জাতীয় দলের বহরের হোটেলে ওঠার কথা ছিল। ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শেরে বাংলায় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুশীলন শুরুর পরিকল্পনা ছিল। এর তিনদিন পর ২৪ সেপ্টেম্বর শেষবার করোনা টেস্ট করে নেগেটিভদের নিয়ে ২৭ তারিখ কলম্বো যাত্রার সব কিছু ঠিক করা ছিল।

এখন করোনা টেস্ট করিয়ে রাখা হচ্ছে ঠিক, বাকি সূচিগুলো ঠিক থাকবে কি থাকবে না, তা নির্ভর করবে আসলে সফর হওয়া না হওয়ার ওপর। লঙ্কান বোর্ড কাল-পরশুর মধ্যে ইতিবাচক জবাব দিলে সফর বহাল থাকবে। আর নেতিবাচক জবাব আসলে আপনা আপনি সফর বাতিল হয়ে যাবে। তখন আর টেস্টে উত্তীর্ণদের হোটেলে ওঠার প্রশ্নই আসবে না।