ইজিবাইক চোর সিন্ডিকেটের ৩ সদস্য  আটক, ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভাড়ায় চালানোর কথা বলে ইজিবাইক নিয়ে তা চুরি করে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় ইজিবাইক চোর সিন্ডিকেটের ৫ সদস্যের বিরুদ্ধে যশোর কোতায়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

আসামিরা হলো, যশোর শহরতলীর পালবাড়ি নতুন খয়েরতলা স্কুলের পেছনের শাহজাহান মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া শেখ মজনু আহমেদ (৩০), নীলগঞ্জ তাতীপাড়ার এনামুলের ভাড়টিয়া এনামুল হক (৩৮), সাতক্ষীরারা তালা উপজেলার আলাদিপুর গ্রামের কেসমত শিকদারের ছেলে মাসুম বিল্লাহ (৩৩), যশোরের চৌগাছা উপজেলার দক্ষিণ সাগর মেড়ো গ্রামের মৃত মৃদুল মিয়ার ছেলে টিটু মিয়া ওরফে শান্ত এবং শহরতলীর নতুন খয়েরতলা এলাকার মৃত ওমর আলী গাজীর ছেলে আব্দুর রহমান (৫৪)। এদের মধ্যে টিটু মিয়া ও আব্দুল রহমান পলাতক রয়েছে।

যশোর সদর উপজেলার হাশিমপুর ফুলবাড়ি গ্রামের সাহাবাব বিশ্বাসের স্ত্রী মুক্তা বেগম কোতয়ালি থানায় দায়েরকরা এজাহারে উল্লেখ করেছেন, তার স্বামীর একটি ইজিবাইক আছে। তিনি ওই ইজবাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। গত ১৪ সেপ্টম্বর সন্ধ্যান দিকে তিনি ইজিবাইকটি নিয়ে মনোহরপুর বাজারে যান। সেখানে গেলে আসামি শান্ত দুই ঘন্টার জন্য ইজিবাইকটি ভাড়া নেয়। এরপর সে আর ফিরে আসেনি। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যায়। তাকে অনেক স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে কোতয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। পরে জানতে পারেন ইজিবাইকটি আসামি মজনুর কাছে আছে। পুলিশ নিয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে মজনুকে আটক করা হয়। মজনু জানায় একশ টাকার একটি স্ট্যাম্পে লেখলেখি করে আসামি আব্দুর রহমানকে বিক্রতা সাজিয়ে আসামি মাসুম বিল্লাহের কাছে তা বিক্রি করেন। পরে আসামি এনামুলের নীলগঞ্জ এলাকার ব্যাটারির দোকানে বসে ওই কেনাবেচা হয়। পরে এনামুলকে আটক করা হয়।এরপর বুধবার রাতে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার আলাদিপুর গ্রাম থেকে মাসুম বিল্লাহকে আটক করে ইজিবাইকটি উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় ৫জনের নামে মামলা হয়েছে।