যশোর সদর উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন : ভূমিদখল ও টেন্ডারবাজি বন্ধ করতে চান সম্ভাব্য প্রার্থী শহিদুল ইসলাম মিলন

মিরাজুল কবীর টিটো : যশোর সদর উপজেলাবাসীর সার্বিক উন্নয়ন, কল্যাণ সাধন, দরিদ্র ছেলেমেয়ের লেখাপড়ার ব্যবস্থা, যৌতুক, নির্যাতন, বাল্য বিবাহ, ভুমি দখল বন্ধ ও টেন্ডারবাজি অনিয়ম দূর করে স্বচ্ছসেবা প্রদান করতে চান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন। এ লক্ষ্য নিয়ে তিনি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে আগ্রহী। তিনি বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে উপজেলার সকল শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, রাস্তা ,কালভার্টের উন্নয়ন করা হবে। উপজেলা থেকে টেন্ডারবাজি, পরিষদের সকল শাখার অনিয়ম দুর্নীতি দূর করে উপজেলা বাসিকে স্বচ্ছসেবা প্রদান করা হবে। পাশাপাশি উপজেলার আওতাধীন গরিব ছেলে মেয়ের লেখাপড়ার ব্যবস্থা করা হবে। কোনো ছেলেমেয়ের লেখাপড়া যেন অর্থের অভাবে বন্ধ না হয়। সেই সাথে উপজেলা পরিষদকে করা হবে নারী নির্যাতন, যৌতুক, বাল্য বিবাহ ও ভূমি দখলমুক্ত। উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে যত স্বাস্থ্য ক্লিনিক আছে সেগুলোতে গরিব অসহায় মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা হবে।

শহিদুল ইসলাম মিলন তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার সম্পর্কে বলেন, ১৯৬৬ সালে ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক থাকা কালীন  ছয়দফা আন্দোলনে সক্রিয় অংশ গ্রহন করি। ওই সময় থেকে এ পর্যন্ত  রাজনীতিতে নেতাকর্মীদের নিয়ে রাজ পথে আছি। দেশ স্বাধীনের পর পর্যায়ক্রমে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দুইবার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। এরপর যশোর জেলা আওয়ামী লীগের দুইবার যুগ্মসম্পাদক, সহসভাপতি ছিলাম। বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছি। এর পাশাপাশি যশোর চেম্বার অব কমার্সে ১৩ বছর সভাপতি, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি ও রওশন আলী কলেজের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছি। সদর উপজেলার জনবহুল ইউনিয়ন নওয়াপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলাম। বর্তমানে সদর উপজেলা মোমিননগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতির দায়িত্বে আছি। এসব সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মান্ডের দিক দিয়ে  উপজেলার সব শ্রেণি পেশার মানুষের কাছে আমি পরিচিত ও আমার গ্রহণযোগ্যতা আছে। এ কারনে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারলে উপজেলা বাসির চাওয়া পাওয়া ও আশা আকাঙ্খা পুরণ করতে পারবো। যদি দল মনোনয়ন দেয় তাহলে নির্বাচন করবো। আর যদি আমাকে মনোনয়ন না দেয় যাকে মনোনয়ন দেবে তাকে সার্বিক সহযোগিতা করবো।