ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করছে আরও ৫ দেশ : যুক্তরাষ্ট্র

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : উপসাগরীয় দুই দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনের পর এবার আরও পাঁচটি দেশ ইসরায়েলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক স্থাপনের পরিকল্পনার করছে বলে ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মার্ক মিডোস এমন তথ্য জানিয়েছেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, নির্বাচনী প্রচারে এয়ার ফোর্স ওয়ানে করে উইনকিনসনে যাচ্ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সময় তার সরকারি ওই বাহনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মার্ক মিডোস জানান, এসব দেশ ইসরায়েলের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কথা গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে।

তবে এই পাঁচটি দেশ সম্পর্কে কিছু না জানালেও তিনি এটা নিশ্চিত করেছেন যে এর মধ্যে তিনটি দেশই আরব অঞ্চলের। এরপর এ নিয়ে আর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। ট্রাম্প প্রশাসনের মধ্যস্থতায় চলতি সপ্তাহে হোয়াইট হাউসে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তি করে আমিরাত এবং বাহরাইন।

ট্রাম্প এই চুক্তির পর থেকে জানাচ্ছেন আরও অনেক দেশ ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে যাচ্ছে। সম্ভবত এর মধ্যে একটি দেশ হলো ওমান, কেননা দেশটির রাষ্ট্রদূত গত মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে ওই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিলেন। ট্রাম্প ইঙ্গিত দিয়েছেন হয়তো সৌদি আরবও চুক্তি করতে রাজি হবে।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি বিশ্বাস করেন, ইসরায়েলের সঙ্গে পুরোপুরি সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনকে অনুসরণ করবে সৌদি আরব। তেল আবিবের সঙ্গে অন্যান্য যেসব আরব দেশ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের অপেক্ষায় রয়েছে, তাদের মধ্যে অন্যতম সৌদি আরব।