মণিরামপুরে ভাই ও ভাইপোর হাতে অবসরপ্রাপ্ত মাদ্রাসা শিক্ষক খুন


মণিরামপুর প্রতিনিধি :
মণিরামপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আপন ভাই ও ভাইপোর হাতে খুন হয়েছেন আব্দুস সাত্তার (৬৫) নামে অবসরপ্রাপ্ত এক মাদ্রাসা শিক্ষক। শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ পারভেজ (২৬) নামে নিহতের এক ভাইপোকে আটক করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য সন্ধ্যার পর নিহতের মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহিম গোলদারের ৫ পুত্র যথাক্রমে (অবসরপ্রাপ্ত মাদ্রাসা শিক্ষক) আব্দুস সাত্তার, আব্দুল হামিদ, জয়নাল আবেদীন, আব্দুল কুদ্দুস ও রোকনুজ্জামনের মধ্যে ৮৭ শতক জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আর এ ঘটনার জের ধরে পাঁচ ভাই দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন। এর মধ্যে আব্দুস সাত্তারের পক্ষে অবস্থান নেয় জয়নাল আবেদীন ও আব্দুল কুদ্দুস। বাকী দুই ভাই আব্দুল হামিদ ও রোকনুজ্জামান তাদের মেঝ ভাই আব্দুস সাত্তারের উপর ক্ষিপ্ত ছিলেন। জমির বিরোধ নিয়ে ইতোপূেের্ব ভাইদের মধ্যে একাধিক শালিস বৈঠক হয়। ফলে পূর্ব বিরোধের জের ধরে গতকাল শুক্রবার বিকেলে আব্দুল হামিদ তার ভাই রোকনুজ্জামান ও আব্দুল হামিদের পুত্র পারভেজসহ তাদের পক্ষের লোকজন আব্দুস সাত্তারের উপর হামলা চালায়। এক পর্যায় এলোপাতাড়ি লাথি ও কিলঘুষিতে তিনি জ্ঞান হারান। পরে আব্দুস সাত্তারকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পরপরই হামলাকারীরা পালিয়ে গেলেও পুলিশ নিহতের ভাইপো পারভেজ হোসেনকে আটক করে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মণিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।