কথিত জ্বিনের কবিরাজ আমেনার অপচিকিৎসায় পঙ্গু হলেন সাবিনা

বি এইচ মোহাম্মদ: যশোর সদর উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের চান্দুটিয়া গ্রামের সেই কথিত জ্বিনের কবিরাজ আমেনা বেগমের অপচিকিৎসায় শেষ পর্যন্ত পঙ্গু হলেন ২ সন্তানের জননী সাবিনা খাতুন (৩৮)। শনিবার যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তার ডান পা কেটে ফেলেন চিকিৎসকরা। সাবিনা চুড়ামনকাটি গ্রামের জসিম উদ্দিনের স্ত্রী। কবিরাজ আমেনার অপচিকিৎসায় পা হারানোর ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বজনদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

চুড়ামনকাটি গ্রামের জসিম উদ্দিন জানান, কয়েকদিন আগে রান্নাঘর পরিস্কার করার সময় তার স্ত্রী সাবিনার ডান পায়ে মাছের কাটা ফুটে যায়। দুই দিন পর পা ফুলে যায়। লোক মাধ্যমে জানতে পারি চান্দুটিয়া গ্রামের জ্বিনের কবিরাজ আমেনার কথা। সরল মনে সাবিনার চিকিৎসার জন্য তার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। কবিরাজ ঝাঁড় ফুক ও চিকিৎসার পর বিভিন্ন গাছের পাতা দেন। এ সময় কবিরাজ তাকে জানান, চিকিৎসা দিয়েছি ভালো হয়ে যাবে। জসিম উদ্দিন জানান, কবিরাজ আমেনার কথামতো চিকিৎসা চলছিলো। কিন্তু কম না হয়ে পায়ের মাংসে পচন ধরে। গত সপ্তাহে অবস্থা গুরুতর হলে সাবিনাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাসেবায় উন্নতি না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত শনিবার সাবিনার পা কেটে ফেলেছেন চিকিৎসক। সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেলেন।

অর্থোপেডিক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. আব্দুর রউফ জানিয়েছেন, সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসাসেবা না পাওয়া ও অপচিকিৎসার কারণে সাবিনার পায়ের মাংস পচে নষ্ট হয়ে যায়। পায়ের বিভিন্ন স্থান একেবারে কালো হয়ে যায়। দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। এতোটা খারাপ অবস্থা হয়েছিলো যে ওষুধের মাধ্যমে ভালো করা সম্ভব ছিলো না। বাধ্য হয়ে শনিবার অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সাবিনার ডান পা কেটে ফেলা হয়েছে। কবিরাজের অপচিকিৎসার ব্যাপারে সকলকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, যদি কথিত জ্বিনের কবিরাজ আমেনার অপচিকিৎসায় ওই নারী পঙ্গু হয়ে যান সেটি অবশ্যই কষ্টদায়ক। কবিরাজের অপচিকিৎসার বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য,চান্দুটিয়া গ্রামের মধ্যপাড়ায় কথিত জ্বিনের কবিরাজ পরিচয়ে দুইজন অপচিকিৎসা ও প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরমধ্যে একজন হলেন বাকেরের বউ হিসেবে পরিচিত আমেনা বেগম। অপরজন বিল্লাল হোসেন। তাদের খপ্পরে পড়ে অনেকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।