যুক্তরাষ্ট্রের বিরল সম্মাননায় ভূষিত হলেন কুয়েতের আমির

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ মর্যাদাপূর্ণ সম্মাননাগুলোর একটি ‘লিজিওন অব মেরিট‘ নামক সামরিক সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন কুয়েতের ৯১ বছর বয়সী আমির সাবাহ আল-আহমেদ আল-জাবের আল-সাবাহ। শুক্রবার হোয়াইট হাউসে এক ঘরোয়া অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা প্রদান করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আনাদোলুর প্রতিবেদন অনুযায়ী আল-সাবাহ’র জ্যেষ্ঠ পুত্র হোয়াইট হাউসে বাবার পক্ষে সম্মাননাটি গ্রহণ করেছেন। এখন যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসা চলছে শারীরিকভাবে অসুস্থ কুয়েতের আমির আল-সাবাহ’র। তবে কি অসুস্থতায় ভুগছেন জানা না গেলেও তিনি এখন মিনিয়েসোটার মায়ো ক্লিনিকে আছেন বলে জানা গেছে।

ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) পরাস্ত করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে সাম্প্রতিক অভিযানগুলোসহ মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কিছু অঞ্চলে মার্কিন সামরিক বাহিনীর অভিযানের কয়েকটিতে কুয়েতের সমর্থনকে ইঙ্গিত করে দেশটির নেতাকে যুক্তরাষ্ট্রের সত্যিকারের অটল বন্ধু এবং অংশীদার হিসেবে অভিহিত করেছে হোয়াইট হাউস।

এ নিয়ে হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে লিখেছে, ‘মধ্যপ্রাচ্যে বিরোধ নিষ্পত্তিতে তার অক্লান্ত মধ্যস্থতায় সবচেয়ে চ্যালেঞ্জপূর্ণ মতভেদ দূরীকরণে কাজ করেছে। প্রেসিডেন্ট তার প্রিয় বন্ধু কুয়েতের আমিরকে এই সম্মান প্রদান করে অত্যন্ত সন্তুষ্ট হয়েছেন।’ দীর্ঘদিন ধরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে এ পুরস্কার দেয়া হচ্ছিল না।

১৯৯১ সালে সবশেষ এই সম্মাননা দেওয়া হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট তরফ থেকে। প্রায় ৩ দশক পর কুয়েতের আমিরকে সেই সম্মাননা দিলেন ট্রাম্প। কুয়েতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থার (কেইউএনএ) বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে ‘দ্য লিজন অব মেরিট, ডিক্রি অব চিফ কমান্ডার’ সম্মাননাটিকে খুবই মর্যাদাপূর্ণ হিসেবে দেখা হয়।