চৌগাছায় উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরের চৌগাছার কালিয়াকুন্ডি বাঁওড়ের উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরতে গিয়ে  সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন আহত হয়েছেন। রোববার দুপুরে স্থানীয় নারী ইউপি সদস্যের স্বামী জুল হোসেনের নেতৃত্বে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।  আহতরা হলেন, উপজেলার পাশাপোল ইউনিয়নের কালিয়াকুন্ডি গ্রামের হেরমত আলীর ছেলে আব্দুস সাত্তার (৩৫), সাঈদুল হকের ছেলে ওমর আলী (২৮), আয়ুব হোসেনের ছেলে জসিম উদ্দিন (২৩), জিয়াউর রহমানের ছেলে মুকুল হোসেন (১৭)। আহতরা সকলেই চৌগাছা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

আহত ওমর ফারুক ও স্থানীয়রা জানান, নারী ইউপি সদস্য মোমেনার স্বামী জুল হোসেন প্রশাসনের সহযোগিতায় সরকারি বাঁওড় দখল করে মাছ চাষ করে আসছিলেন। এলাকাবাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী আফিসার জাহিদুল ইসলাম, ভূমি অফিসার, ওসিসহ  প্রশাসনের লোকজন এসে বাঁওড় উন্মুক্ত ঘোষণা করেন। তিনি আরো জানান, কিন্তু অদৃশ্য কারণে উন্মুক্ত  বাঁওড়ে মাছ ধরতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। রোববার এলাকাবাসী বিলে মাছ ধরতে গেলে জুল হোসেন তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা চালিয়ে তাদের আহত করেছেন।

ইউপি চেয়েরম্যান অবাইদুল ইসলাম সবুজ বলেন, ঘটনা শুনেছি কিন্তু কারা আহত হয়েছে আমি সঠিক জানি না।

ঘটনার তদন্তকারী অফিসার চৌগাছা থানার এসআই গিয়াসউদ্দিন বলেন,  মাছ ধরতে পুলিশ বাধা দেয়নি। এলাকায় শান্তি বজায় রাখতে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত  উভয়কে বাঁওড়ে না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছিল। তিনি বলেন এঘটনায় উভয় পক্ষই আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রকৌশলী এনামুল হক জানান, আমি যতটা জানতে পেরেছি ওই বাঁওড় সরকারি। আর সে হিসেবে জনগণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল।  এখন ঝামেলা হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।