দাকোপের খোনা গ্রামে বাঁধ  ভেঙে দুটি ইউনিয়ন প্লাবিত

আজগর হোসেন ছাব্বির,দাকোপ: দাকোপের খোনা গ্রামের ঝুকিপূর্ন বাঁধ ভেঙে ঢাকী নদীর জোয়ারের পানিতে দুটি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। দুর্ভোগের শিকার অন্তত ত্রিশ হাজার মানুষ।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩১ নম্বর পোল্ডারের আওতায় উপজেলার পানখালী ইউনিয়নের খোনা গ্রামের ওয়াপদা বেড়িবাঁধ ভেঙে গ্রামে পানি ঢুকছে। পানখালী এবং তিলডাঙ্গা ইউনিয়নের খোনা বারইখালী তিলডাঙ্গা খাটাইলসহ আশ পাশের গ্রাম গুলোতে জোয়ার ভাটায় পানি ওঠা নামা করছে। ফলে ভরা মৌসুমে আমন ফসলের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। ধসে পড়েছে অনেক কাচা ঘরবাড়ি। ক্ষতি হয়েছে সব্জি ফসলের। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান খান জানিয়েছেন অতিদ্রুত বাঁধ নির্মান করা না গেলে কয়েকশ’ হেক্টর আমন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য খুলনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক ১০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল ওয়াদুদ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। এ ছাড়া সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ শেখ আবুল হোসেন, পানখালী ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল কাদেরসহ অন্যান্য জনপ্রতিনিধিরা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

পাউবোর খুলনা বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ ব্যানার্জীর নেতৃত্বে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে জরুরিভাবে বাঁধ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। অতিদ্রুত ভেঙে যাওয়া বাঁধ নির্মাণ করা না গেলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা এলাকাবাসীর।