৯৯৯ ফোন করা নিয়ে চৌগাছায় এক নারীর সংবাদ সম্মেলন

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : বুধবার দুপরে চৌগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নারায়নপুর ইউনিয়নের বাদেখানপুর গ্রামের লিপিকা সুলতানা (৫৫)। লিখিত বক্তব্যে তিনি অভিযোগ করেছেন, সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়ে ৯৯৯ ফোন করেন তিনি। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসেই কিছু আলামত উদ্ধার করে। একই সাথে সন্ত্রাসীদের সাথে বিবাদ না করার জন্য হুমকি দেয়।

তিনি পুলিশের এই হুমকীতে মর্মাহত হয়ে সাংবাদ সম্মেলন করছেন বলে জানান। তিনি প্রশ্ন রাখেন ৯৯৯ এ পুলিশ সাহায্য নেয়া কি আমার অপরাধ হয়েছে?

ওই নারীর বড় ছেলে রুবেল হোসেন জানান এ ঘটনায় তারা মঙ্গলবারই (২০ অক্টোবর) চৌগাছা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। যার তদন্তের দায়িত্বে রয়েছেন উপপরিদর্শক (এসআই) এমদাদ হোসেন।

ওই রাতে জরুরি সেবা দিতে গিয়েছিলেন চৌগাছা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কাওছার আলম। তিনি অভিযোগের বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ(ওসি)র সাথে কথা বলার পরামর্শ দেন।

উপপরিদর্শক (এসআই) এমদাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন  ‘ওই পরিবারের লিখিত অভিযোগটি আমার কাছে আছে। বৃহস্পতিবার তদন্তে যাবো।’

চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজীব বলেন ‘হুমকি দেয়ার কোনো ঘটনা ঘটেনি। মিমাংশা করার জন্য উভয় পক্ষকেই গোলযোগ করতে নিষেধ করা হয়েছে।’