সাড়ে ৪ মাসেও সন্ধান মেলেনি সন্ত্রাসী ট্যাবলেট সোহেলের


নিজস্ব প্রতিবেদক:
সাড়ে চার মাসেও সন্ধান মেলেনি যশোরের অভয়নগর উপজেলার পচা মাগুরা গ্রামের শ্বশুরবাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়া সোহেল ওরফে ট্যাবলেট সোহেলের (৩০)। গত ৬ জুন রাতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে ট্যাবলেট সোহেলকে তুলে নেয়া হয়। এরপর অনেক স্থানে সন্ধান করেছে তার পরিবার। কিন্তু ট্যাবলেট সোহেলের সন্ধান করতে পারেনি।
ট্যাবলেট সোহেল যশোর শহরের টিবি ক্লিনিক এলাকার মানিক মুন্সির ছেলে।
তার মা আয়েশা বেগম বলেছেন, সোহেল নিখোঁজ হওয়ার পর অভয়নগর থানায় গিয়েছি। তার স্ত্রী রোমেছাও গিয়েছে। কিন্তু পুলিশ তেমন কোনো গুরুত্ব দেয়নি। এছাড়া তিনি যশোর কোতয়ালি থানায় গেলেও বলা হয় অভয়নগরের ঘটনা। সেখানে গিয়ে খোঁজ করতে।
আয়েশা জানিয়েছেন, গত ১০ অক্টোবর ট্যাবলেট সোহেলের একটি পুত্র সন্তান জন্ম হয়েছে। ছেলে জন্মের পর তিনি সোহেলের খোঁজ খবর নিচ্ছেন। কিন্তু কোনো সন্ধান মেলাতে পারছেন না।
প্রসঙ্গত, সোহেল ওরফে ট্যাবলেট সোহেল বেজপাড়া টিবি ক্লিনিক এলাকার সন্ত্রাসী হিসাবে পরিচিত। সে হত্যাসহ অনেক মামলার আসামি। ট্যাবলেট সোহেল নিখোঁজ হওয়ার পর টিবি ক্লিনিক এলাকার একটি মেস থেকে একটি মোটরসাইকেলসহ টাকা পয়সা লুট মামলা আসামি হয়। কিন্তু ওই মামলায়ও পুলিশ সোহেলকে আটক করতে পরেনি।