দুই শিশুর মারামারি ঘটনা হামলা জখমের মামলা রেকর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর শহরতলীর ছোট গোপালপুরে খেলার ছলে দুই শিশুর মধ্যে মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে  প্রতিপক্ষের হামলায় জখম হওয়ার ঘটনায় আদালতে দায়ের করা পিটিশন কোতয়ালি থানায় নিয়মিত মামলা হিসাবে রেকর্ড হয়েছে। মামলাটি করেছেন ওই গ্রামের মৃত ইজ্জত আলীর ছেলে আব্দুল হাকিম। আসামিরা হলো, শেখহাটি বড় প্রাচীরের পাশে মৃত গফুর বিশ্বাসের ছেলে হারুন (৫৫), মাহাবুর (৩৩), মিলন (৫০), মৃত রহিম বিশ্বাসের ছেলে আনিছুর রহমান (৩৫), মহিদুল ইসলামের ছেলে জাহিদ (২৬) এবং নিউটাউন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশের শাহিদুল ইসলামের ছেলে জিসান (২২)।

আব্দুল হাকিম পিটিশনে উল্লেখ করেছেন, আসামি ও বাদি একই এলাকার বাসিন্দা। গত ১২ নভেম্বর বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে খেলা করার সময় তার নাতনী কুলসুমকে (৭) আসামি আনিছুরের ছেলে স্বপ্নিল (৮) একটি ইট ছুঁড়ে মারে। এতে কুলসুমের মাথা কেটে যায়। এবিষয়ে প্রতিবাদ করলে আসামিরা একজোট হয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। তাকেসহ ৩/৪জনকে মারপিট করে। লোহার রড, বাঁশের লাঠিসহ অন্যান্য অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে জখম করে। বাড়ির নারীদের ওপরও হামলা করে শ্লীলতাহানী ঘটায়। পরে হুমকি দিয়ে চলে যায়। সে সময় আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে আলমগীর হোসেন নামে এক ভাইয়ের অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সে সেখানেই চিকিৎসা নিচ্ছে।

তিনি (বাদি আব্দুল হাকিম) এ বিষয়ে কোতয়ালি থানায় অভিযোগ দিতে গেলে আসামিরা প্রভাবশালী হওয়ায় পুলিশ মামলা নেয়নি। পরে তিনি গত ১৭ নভেম্বর আদালতে একটি পিটিশন দাখিল করেন।  আদালতের নির্দেশে কোতয়ালি থানা পুলিশ গত শুক্রবার রাতে পিটিশনটি নিয়মিত মামলা হিসাবে রেকর্ড করে।