যশোরে মারামারি ও চুরি মামলায় দুই ভাইয়ের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে মারামারি ও চুরি মামলায় দুই ভাইকে ভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে একটি আদালত। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অপর ৪ আসামিকে খালাস দিয়েছে।  সাজাপ্রাপ্তরা হলো যশোর সদরের আন্দুলিয়া গ্রামের শাহাজান মোল্লার ছেলে আক্তার হোসেন ও আব্দুল মান্নান। মঙ্গলবার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শাহাদত হোসেন এক রায়ে এ সাজা দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, আসামিদের সাথে জমি নিয়ে একই গ্রামের মতিয়ার রহমানের বিরোধ চলছিল। ২০১০ সালের ১০ ডিসেম্বর সকালে মতিয়ার ও তার ছেলে ৩৫ হাজার ৩শ’ টাকা নিয়ে পাওনাদার নরেন্দ্রপুর গ্রামের হাবিবুরকে দেয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। পথিমধ্যে আসামিদের বাড়ির সামনের পৌঁছালে পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাদের মারপিট ও কুপিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয়। চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে ১৪ ডিসেম্বর মতিয়ার রহমান বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে হত্যা চেষ্টা ও চুরির অভিযোগে আদালতে মামলা করেন। আদালতের আদেশে ১৫ ডিসেম্বর কোতয়ালি থানায় নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু হয়। এ মামলার তদন্ত শেষে ৩০ ডিসেম্বর এজাহারভুক্ত ৬ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাহমুদ আল ফরিদ ভুইয়া। এ মামলার দীর্ঘ সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি আক্তার হোসেনর বিরুদ্ধে ৩২৬ ধারার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৩ বছর কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা, ৩৭৯ ধারার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ১ বছর কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানা এবং আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে ৩২৪ ধারার অভিযোগে প্রমাণিত হওয়ায় ১ বছর কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন বিচারক। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় কামরুল হোসেন, বদিয়ার রহমান, সাত্তার ও একরামকে খালাস দিয়েছে আদালত। সাজাপ্রাপ্ত আক্তার হোসেন ও আব্দুল মান্নান কারাগারে আটক আছে।