টাউনহল মাঠে জনসম্মুখে চা দোকানিকে ছুরিকাঘাত, হামলাকারীকে গণপিটুনি

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর টাউন হল মাঠে জনসম্মুখে চা দোকানি জাকির হোসেনকে (৩৫) এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে জখম করেছে এক দুর্বৃত্ত। শনিবার রাত ৯ টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। জাকির শহরের কাজীপাড়া আমতলা এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে। হামলাকারী আসিফ (২৫) গণপিটুনির শিকার হয়েছে। তারা দুইজনই যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আসিফ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার বাদুরখালি গ্রামের শাহাদাতের ছেলে। বর্তমানে তারা বারান্দীপাড়ার আম্বিয়ার ভাড়াবাড়িতে বসবাস করে।

আহত জাকির হোসেন জানিয়েছেন, টাউন হল মাঠের উন্মুক্ত মঞ্চের পাশে আমার চায়ের দোকান রয়েছে। ঘটনার সময় ওই যুবক (আসিফ) এসেই আমার বুকে ছুরিকাঘাতের চেষ্টা করে। তখন আমি চায়ের কেতলি দিয়ে ঠেকায়। এরপর আমার বাম পা লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করা হয়। দোকানে উপস্থিত লোকজন চিৎকার দিলে দুর্বৃত্ত দৌড় দেয়। জাকির হোসেন জানান, হামলাকারী  যুবকের সাথে আমার কোনো শত্রুতা নেই। তাকে আমি চিনি না। কি কারণে আমাকে জখম করা হলো তাও জানা নেই। তবে জাকিরের ধারণা, তার পাশের চায়ের দোকানদারের ইশারায় আমাকে জখম করা হতে পারে। কারণ হিসেবে জানান, আমার বেচা কেনা ভালো হওয়ায় পাশের দুইজন চা দোকানি আমাকে বাঁকা চোখে দেখতেন। স্থানীয় এক যুবক জানান, হামলাকারী আসিফকে ধরার জন্য প্রথমে ৫ জন পিছু নেয়। কিন্তু ৫ জনকে সে ছুরিকাঘাত করার ভয় দেখিয়ে দৌড়াতে থাকে। পরে তাকে ধরে গণপিটুনির পর পুলিশে সোপর্দ করা হয়। হাসপাতালের চিকিৎসক সালাউদ্দিন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, আহত জাকিরের শরীরে ৭ টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে অবস্থা গুরুতর। গণপিটুনির শিকার আসিফ মদ্যপ অবস্থায় রয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন আছে। কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই ফারুক জানান, হামলাকারী আসিফের কাছ থেকে ছুরি উদ্ধার হয়েছে। নেশাগ্রস্ত থাকার কারণে কি কারণে জাকিরকে ছুরিকাঘাতে জখম করা হয়েছে তা জানা যায়নি।