যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আইসিইউ চালু হচ্ছে শিগগির

বিল্লাল হোসেন : খুব শিগগির চালু হচ্ছে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ইন্টেন্সিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ)। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেন্ট্রাল মেডিকেল সেন্টার ডিপো (সিএমএসডি) মঙ্গলবার ৫ টি বেড (শয্যা), ২৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ৩ টি হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা (এইচএফএনসি) বরাদ্দ পাওয়ার পর এমনটা জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরআগে আরো ৬ টি শয্যা বরাদ্দ মিলেছিলো।

হাসপাতালের প্রশাসনিক সূত্র জানিয়েছে, করোনা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হয়ে ওঠার কারণে গত মে মাসে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ১০ শয্যার আইসিইউ ওয়ার্ড করার জন্য ১০ টি ভেন্টিলেটর চেয়ে মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায় কর্তৃপক্ষ। জুন মাসে মন্ত্রনালয় ৬ টি ভেন্টিলেটর বরাদ্দ পায়। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে ৬টি ভেন্টিলেটর হাসপাতালে এসে পৌঁছায়। অক্টোবর মাসে আইসিইউ ওয়ার্ড প্রস্তুত হয়ে যায়। পরে দক্ষ চিকিৎসক, সেবিকা, ৬টি শয্যা, মনিটর , অক্সিজেন, পাইপ লাইনসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি বরাদ্দের ব্যাপারে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে চাহিদাপত্র পাঠানো হয়। নভেম্বর মাসে ৫ টি বেডের বরাদ্দ পাওয়া যায়। অন্যান্য যন্ত্রপাতির অনুমোদন না মেলার কারণে কবে আইসিইউ কার্যক্রম শুরু হবে তা নিয়ে অনিশ্চিত হয়ে পড়ে কর্তৃপক্ষ। এরমধ্যে সিএমএসডি থেকে বেড , অক্সিজেন সিলিন্ডার ও হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা বরাদ্দ পাওয়ায় এ অনিশ্চিয়তা কেটে গেলো। সূত্র জানায়, সিএমএসডিতে মেডিকেল অফিসার হিসাবে কর্মরত যশোরের ছেলে ডা. হাসান শাহরিয়ারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আইসিইউ ওয়ার্ডের জন্য এ মালামালগুলো সামান্য সময়ের মধ্যে বরাদ্দের অনুমোদন মিলেছে। চলতি সপ্তাহে মালামালগুলো পৌঁছে যেতে পারে। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দিলীপ কুমার রায় জানান, সিএমএসডি থেকে শয্যা, মনিটর , অক্সিজেন, পাইপ লাইনের বরাদ্দ পাওয়া গেছে। মালামালগুলো পৌঁছালে খুব শিগগির আইসিইউ ওয়ার্ড চালু করা সম্ভব হবে।