ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ সোমবার, ২১ জুন , ২০২১ ● ৬ আষাঢ় ১৪২৮

অবশেষে বয়স্ক ভাতার কার্ড জুটলো চৌগাছার শতবর্ষী আয়শার কপালে

Published : Wednesday 05-May-2021 21:21:43 pm
এখন সময়: সোমবার, ২১ জুন , ২০২১ ০৩:৫৫:০৩ am

বাবুল আক্তার, চৌগাছা : অবশেষে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেয়েছেন যশোরের চৌগাছা উপজেলার শতবর্ষী বৃদ্ধা আয়শা খাতুন।  ‘দৈনিক স্পন্দন’ এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশ হলে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দৃষ্টিগোচর হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উদ্যোগে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় শতবর্ষী এই বৃদ্ধার বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থা করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার মেহেদি হাসান।

আয়শা খাতুনের বাড়ি পৌরসভার হুদা চৌগাছা এলাকায়। তিনি মৃত মইজ উদ্দীনের স্ত্রী। ভোটার আইডি কার্ডে তাঁর বয়স ৯০ বছর। প্রকৃত পক্ষে তার বয়স একশ বছরের বেশি বলে দাবি করছেন তাঁর স্বজনরা। কিন্তু এর আগে এই বৃদ্ধার নাম বয়স্ক ভাতার তালিকায় ওঠেনি।

সমাজ সেবা কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ি বয়স্ক ভাতা পেতে নারীরর জন্য বয়স ৬২ আর পুরুষের জন্য ৬৫ হওয়া প্রয়োজন। সে অনুযায়ি আয়শা খাতুন প্রায় ৫০ বছর আগে বয়স্ক ভাতা পাওয়ার কথা ছিল। অবশ্য বাংলাদেশে ১৯৯৭-৯৮ অর্থ বছরে প্রথম বয়স্ক ভাতা কর্মসূচি চালু করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এনামুল হক বলেন, এই বৃদ্ধার সম্পর্কে আগে জানাছিল না। মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর জানতে পেরেছি। এর প্রেক্ষিতে একজন মৃত ব্যক্তির স্থলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তার নামটি প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আয়শা খাতুনের স্বামী মারা গেছেন ২৫ বছর আগে। তিনি এখন ছোখেও ঠিকমত দেখতে পান না। তার সহায় সম্বল বলতে কিছুই নেই। তার ছেলে সন্তানেরা সকলেই দিন আনা; দিন খাওয়া। বয়সের ভারে অনেক আগেই কর্মশক্তি হারালেও পেটের ক্ষুধা মেটাতে মানুষের কাছে হাত পাততে হয়। মাঝে মধ্যে রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়লে তার দুর্গতির শেষ থাকেনা।

আয়শা খাতুন ছোট্ট একটি জরাজীর্ণ ছনের ঘরে বসবাস করেন। বর্তমানে ঔ ঘরটিও বসবাসের তেমন উপযোগী নয়। জরাজীর্ণ ঘরের চারিদিকে আগাছায় ভরেগেছে।

উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার মেহেদী হাসান বলেন, নতুন বয়স্ক ভাতার তালিকায় আয়শা খাতুনের কার্ডটি নতুন সংযোজন হওয়ায় ঈদুল ফিতরের আগে কোনো আর্থিক সহয়তা পাবেন না।