ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ রবিবার, ১৬ মে , ২০২১ ● ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

কপিলমুনিতে ১৪৪ ধারা ভেঙে ঘের দখল!

Published : Sunday 14-March-2021 21:57:10 pm
এখন সময়: রবিবার, ১৬ মে , ২০২১ ০৫:৩৯:০০ am

কপিলমুনি (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনিতে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে অন্যের মৎস্য ঘের দখল করার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে । শনিবার সকালে উপজেলার কপিলমুনি ইউনিয়নের গোয়ালবাথান আমড়াতলায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইনস্পেক্টর সঞ্জয় দাশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং দখল প্রক্রিয়া বন্ধের জন্য কোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন। ততক্ষণে মৎস্য ঘেরের টিনের বাসা ভাংচুর, দুটি স্যালো মেশিন ও বেঁড়িবাধ কেটে ফেলে তারা।

ভুক্তভোগী ঘের মালিক উপজেলার নোয়াকাটি গ্রামের মৃত নুরবক্স গাজীর ছেলে শহিদুল জানান, পৈত্রিক ও খরিদ সূত্রে প্রাপ্ত জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ মৎস্য ঘের পরিচালনা করছেন।  সম্প্রতি আসাদুল ইসলাম একটি ভৌতিক নিলাম খরিদের কথা বলে দেওয়ানী আদালতে একটি মামলা রুজু করে। মামলাটি আপিল বিচারাধীন রয়েছে। আপিল মামলায় সাক্ষী শুনানির জন্য মহামান্য হাইকোর্টে একটি সিভিল রিভিশন দাখিল করা হয়। যা নি¤œ আদালতে সকল আদেশের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে আদেশ দেন মহামান্য হাইকোর্ট। এমতাবস্থায় প্রতিপক্ষ আসাদুল জমির দখল নিতে মরিয়া হয়ে ওঠে। দুই পক্ষের উত্তেজনার মধ্যে গদ ১ মার্চ আদালত ১৪৪ ধারা জারি করে স্থিতিবস্থা বজায় রাখতে পাইকগাছা থানার ওসিকে নির্দেশ প্রদান করেন। যা কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ির এস আই মুহাম্মদ আলীম দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়ে উভয় পক্ষকে নোটিশ দ্বারা অবগত করে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নির্দেশ দেন। এদিকে এ ঘটনার পর আদালতের ১৪৪ ধারা নির্দেশনা উপেক্ষা করে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপিকা ঢালীর উপস্থিতিতে শনিবার সকালে শতাধিক ব্যক্তি জমি দখল করে নেয়।  পরে পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দেয়।

ইন্সপেক্টর সঞ্জয় দাশ বলেন, আমি খবর পেয়ে সেখানে যায় এবং কাজ বন্ধ করি।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপিকা ঢালী বলেন, আমি মৎস্যঘেরটি বাৎসরিক ১ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকায় ডিড নিয়েছি। ইতোমধ্যে দেড় লক্ষ টাকা পরিশোধ করেছি, যার কাছ থেকে নিয়েছি তার কাগজপত্র সব বৈধ তাই আমার দখল নেয়াটাও বৈধ।’