ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ রবিবার, ১৬ মে , ২০২১ ● ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

কপোতাক্ষ নদ পারাপারে বাঁশের সাঁকোই মানুষের অবলম্বন

Published : Monday 12-April-2021 22:08:28 pm
এখন সময়: রবিবার, ১৬ মে , ২০২১ ০৫:১৬:৫১ am

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: খুলনার পাইকগাছার কপিলমুনি ও তালা উপজেলার কানাইদিয়াস্থ কপোতাক্ষ নদের উপর অবস্থিত ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকোই দু-পারের হাজার হাজার লোকের পারাপারের একমাত্র অবলম্বন। দুই এলাকায় দুই জন সংসদ সদস্যের কাছে ব্রিজ নির্মাণের দাবি করেছে এলাকাবাসী।

খুলনা জেলার পাইকগাছা ও সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার সীমান্ত এলাকার নাম কপিলমুনি ও কানানাইদিয়া। এ সীমান্তে অবস্থিত কপোতাক্ষ নদের উপর প্রায় ১৫ বছর আগে দু-পারের লোকেরা যৌথভাবে বাঁশ দিয়ে সাঁকো নির্মাণ করেন। নদটি প্রবহমান থাকা কালে এখানে খেয়াঘাট ছিল। পরে  ভরাট হয়ে যাওয়ায় নৌ চলাচল এক সময় সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। এক পর্যয়ে সরকার কপোতাক্ষ নদটি খনন করে। ফলে নদে আবার জোয়ার ভাটা শুরু হয়। দুপারের লোকদের দাবীর প্রেক্ষিতে সরকার কপিলমুনি বাজারের উপর দিয়ে ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। নির্মাণ করে অনেকগুলো পিলার। যা আদালতে মামলার কারনে কোন অগ্রগতি হয়নি। তবে খেয়াঘাট যথারীতি চালু রেখে বাঁশের সাঁকো ব্যাবহার করছে। তালা উপজেলার জালালপুর ও খেরশা ইউনিয়নের ১৯ টি গ্রামের হাজার হাজার লোক  প্রতিনিয়ত বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার হচ্ছে বলে জানান স্থানীয় কানাইদিয়া গ্রামের ব্যাবসায়ী শেখ মাহবুবুর রহমান। পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি ও হরিঢালী ইউনিয়নের শত শত লোক। বর্তমান সাঁকোটি খুবই ঝুকিপির্ণ হয়ে পড়েছে। স্থানীয়রা এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণের জন্য তালা- পাটকেলঘাটা ও পাইকগাছা- কয়রার সংসদ সদস্যের কাছে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছেন। খুলনা জেলার পাইকগাছার অন্যতম বাণিজ্যিক শহর কপিলমুনি (বিনোদগঞ্জ) । দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পাইকারী কাঁচা মালামাল বেচাকেনা করতে দেখাযায়। যা দেশ বিদেশে রপ্তানি করা হয় বলে জানা যায় । কপিলমুনি ইউপি চেয়াম্যান কওছার আলী জোয়াদ্দার জানান, এ খেয়াঘাটটি খুবই ব্যস্ততম একটা ঘাট। দুপারের লোকদের যাতায়তের জন্য কপোতাক্ষ নদের উপর ব্রীজ নির্মাণের বিকল্প হতে পারে না।