ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ সোমবার, ২১ জুন , ২০২১ ● ৬ আষাঢ় ১৪২৮

চৌগাছায় বৃদ্ধার আত্মহত্যা, পুলিশকে না জানিয়ে দাফনের চেষ্টা !

Published : Tuesday 23-February-2021 21:41:09 pm
এখন সময়: সোমবার, ২১ জুন , ২০২১ ০৫:০০:২০ am

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছায় সালেহা বেগম (৯২) নামের এক বৃদ্ধা আত্মহত্যা করেছেন। তিনি উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের মৃত জাকির হোসেনের স্ত্রী। সোমবার বিকেলে গ্রামের নিজের ছোট ছেলের বাড়ি মোটরসাইকেল রাখার একটি টিনশেডে আঁড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।  নিহতের ছেলেরা ঘটনাটি পুলিশকে না জানিয়ে দাফনের চেষ্টা করেন। তবে, পুলিশ সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে চৌগাছা থানায় নেয়। মঙ্গলবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার বিকেলে লাশ পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

ওই বৃদ্ধার স্বজন জানিয়েছেন, তার চার ছেলে ও পাঁচ মেয়ে। বড় ছেলে উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। তিনি যশোর শহরে নিজের বাড়িতে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকেন। মেঝ ও সেজো ছেলে গ্রামে থাকেন। তাদের একজনের চৌগাছা উপজেলা শহরে বাড়িও রয়েছে। আর ছোট ছেলে প্রবাস থেকে ফিরে শহরে মুদি ব্যবসা করেন। কোনো ছেলে-মেয়ে তাকে ঠিকমতো দেখাশোনা না করায় ছোট ছেলের সংসারে থেকে অন্য দুই ছেলের সংসারে পালাক্রমে খাবার খেতেন। তাতেও ছেলে-পুত্রবধূরা ঠিকমত যতœ নিতেন না। এমনকি ওই বৃদ্ধা টয়লেট নষ্ট করে ফেলবেন বলে বাড়ির পাকা টয়লেটে তাকে যেতে দেয়া হতো না। সম্প্রতি চৌগাছা শহরে দ্বিতল বাড়ি নির্মাণ করেছেন ছোট ছেলে। বাড়ির কাজ শেষ হওয়ার ছোট ছেলেও শহরে চলে যাবে। তখন কার কাছে থাকবেন। এমন চিন্তা থেকে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে অনেকেই ধারণা করছেন।

নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইউসূফ আলী জানান, পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর পাঠিয়েছে।

চৌগাছা থানার ডিউটি অফিসার এএসআই ইব্রাহিম রাসেল বলেন, এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশটি ময়নাতন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বয়স্ক একজন মানুষ গলায় রশি দিতে ঝুলে পড়া কিছুটা অস্বাভাবিক। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এখন কিছু বলা যাচ্ছেনা।

চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।