ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ● ১২ আশ্বিন ১৪২৮

মাগুরা ও নড়াইল পৌর শহরে আজ থেকে লকডাউন

Published : Sunday 13-June-2021 21:34:21 pm
এখন সময়: মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ০৩:৪৭:৪০ am

স্পন্দন ডেস্ক: নড়াইলের কয়েকটি এলাকায় এক সপ্তাহের লকডাউন ও মাগুরা পৌর ও শহর এলাকায়  লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

মাগুরা  প্রতিনিধি জানান, আজ সকাল  ৬ টা থেকে পরবতী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত চলবে এই লকডাউন ।

গতকাল রোববার  জেলা সার্কিট হাউসে বিকেলে  এক জরুরিসভা শেষে  এই সিদ্ধান্তের কথা জানান, জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম। এ সংক্রান্ত আদেশের একটি চিঠিও জেলা প্রশাসকের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক  বলেন, বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে মাগুরার বিভিন্ন এলাকায়  বিশেষ করে শহরের পৌর এলাকায় করোনা পরিস্থিতি কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী। এ কারণে সার্বিক দিক বিবেচনা করে মাগুরা শহরে  লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময় জরুরি ওষুধ ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন পরিষেবা বাদে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। সন্ধ্যা ৬ টার পর থেকে বন্ধ থাকবে দোকান ও শপিংমল ।

এছাড়া  আদেশের এ  চিঠিতে ঝুঁকি বিবেচনায় রেডজোন চিহ্নিত পূবক পরবতী প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের জন্য জেলা সিভিল সার্জনকে অনুরোধ করা হয়েছে এবং মহম্মদপুর উপজেলায় করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে ।

করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এর আগে গত বৃহস্পতিবার ( ১০ জুন) মাগুরা জেলাকে বিশেষ বিধিনিষেধের আওতায় আনা হয়। সেই বিধিনিষেধে বলা ছিল, সন্ধ্যা সাতটার থেকে সকাল ছয়টা পর্যন্ত জরুরি পরিষেবা ছাড়া সবকিছু বন্ধ থাকবে।এতেও করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায়  সোমবার ‘ লকডাউনের’ সিদ্ধান্ত জানাল প্রশাসন।

উল্লেখ্য, গতকাল রবিবার জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৭ জন । তার মধ্যে সদরে ১ জন, পৌরসভায় ৭,শালিখায় ৩ জন ও মহম্মদপুরে ৬ জন ।  মাগুরায় এখন পর্যন্ত  ৮ হাজার ৩৯০ নমুনার মধ্যে ১ হাজার ৩২৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সুস্থ  হয়েছেন ১ হাজার ২২২ জন।  ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জেলা সিভিল সার্জনের অফিস সূত্রে জানা গেছে।

ফরহাদ খান, নড়াইল জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নড়াইলের কয়েকটি এলাকায় গত শনিবার (১২ জুন) সন্ধ্যা থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন শুরু হয়েছে। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে।

লকডাউনের আওতাভুক্ত এলাকার মধ্যে রয়েছে-নড়াইল পৌর এলাকা, নড়াইল সদর উপজেলার কলোড়া ও সিঙ্গাশোলপুর ইউনিয়ন এবং লোহাগড়া উপজেলা সদরের বাজার এলাকা ও শালনগর ইউনিয়ন। আগামি ১৯ জুন পর্যন্ত এ লকডাউন চলবে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানান, লকডাউন চলাকালে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ১১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে।

এছাড়া লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে শহরে সচেতনতামূলক মহড়া ও চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। জেলা তথ্য অফিস থেকেও প্রচারণা চালনো হচ্ছে। লকডাউন চলাকালে জরুরি পরিসেবা চালু থাকবে।

সিভিল সার্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্র্জন ডাক্তার নাছিমা আকতার জানান, নড়াইলে হঠাৎ করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। গত ২৪ ঘন্টায় ৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে নড়াইল সদর উপজেলায় ৩০ এবং লোহাগড়ায় চারজন। তবে কালিয়া উপজেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় কোনো করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি। নড়াইল জেলায় করোনা রোগী শনাক্ত বিবেচনায় সংক্রমণের হার ৫০ দশমিক ৭৪ শতাংশ। গতকাল (রোববার) সন্ধ্যা পর্যন্ত নড়াইল জেলায় করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৪৮ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৮৬৪ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৭ জনের।