ডুমুরিয়ার বয়রাসিং-আধারমানিক সড়ক দুই বছরেও কার্পেটিং শেষ হয়নি, জনদুর্ভোগ

এখন সময়: মঙ্গলবার, ২৫ জুন , ২০২৪, ০১:৫৯:৪২ এম

শেখ আব্দুস সালাম, চুকনগর : দুই বছর পেরিয়ে গেলেও শেষ হয়নি ডুমুরিয়া উপজেলার বয়ারসিং-আধারমানিক রাস্তার কার্পেটিংয়ের কাজ। চলতি বর্ষা মৌসুমে রাস্তাটি পানি ও কাদায় একাকার। ফলে পথ চলতে গিয়ে দুর্ভোগের অন্ত নেই স্থানীয়দের। ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর প্রশ্নÑকবে শেষ হবে রাস্তার কাজ; কবে তারা রাস্তটি ব্যবহার করতে পারবেন।

উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত জনপদ বয়ারসিং-আধারমানিক বাজার অভিমুখে রাস্তায় কার্পেটিং শুরু হলেও কাজের কোন অগ্রগতি নেই। দুই বছর অতিবাহিত হলেও এখনো কার্পেটিং সমপন্ন হয়নি। স¤প্রতি রাস্তার কাজ বন্ধ রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এলাকার মানুষজন। 

সামান্য বৃষ্টিতেও কাদা পানিতে সয়লাব হয়ে পড়ছে রাস্তাটি। এমন পরিস্থতিতে ওই রাস্তা ব্যবহারে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। জানা গেছে, ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া, মাগুরখালি ও শোভনা তিন ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী স্থানে রাস্তাটির অবস্থান। প্রত্যন্ত এ জনপদের সাধারণ মানুষ যাতায়াতে এই রাস্তা ব্যবহার করে থাকেন। এ ছাড়া কৃষকের উৎপাদিত ধান, সবজি, মাছসহ বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী বাজারজাত করতে যথেষ্ট গুরত্ব বহন করে এই রাস্তা। স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, বিভিন্ন ধরণের যানবহন ও পথচারী অবিরাম যাতায়াত করে থাকে। বেহাল রাস্তার কারণে মুমূর্ষু রোগীদের হাসপাতাল-ক্লিনিকে নিয়ে যেতে সমস্যা হচ্ছে। 

সাবেক ইউপি সদস্য বিষ্ণুপদ মন্ডল, কৃষক বরিন্দ্র নাথ মন্ডল, ব্যবসায়ী দীলিপ মন্ডল, প্রণব রায়, সুক্রিত মন্ডল, প্রধান শিক্ষক বিপিন বিহারী মন্ডলসহ ভুক্তভোগী এলাকাবাসীরা বলেন, জনদুর্ভোগ লাঘবে রাস্তাটির কাজ দ্রæত শেষ করা দরকার।

আটলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ হেলাল উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মানুষজন ঝুঁকিপূর্ণভাবে রাস্তাটি দিয়ে যাতায়াত করছেন। ভোগান্তী নিরসনে দ্রæততম সময়ের মধ্যে রাস্তায় কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ করা জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন তিনি। 

এ বিষয়ে উপজেলা স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, জয়মা নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান রাস্তাটির কাজ শুরু করেছিল। কিন্তু তারা কাজ সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হয়েছে। সে কারণে কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। পুনরায় দরপত্র (টেন্ডার) আহবানের মাধ্যমে রাস্তার কাজ শেষ করা হবে।