সুযোগ পেলে শিক্ষকতা করতে চান বিদায়ী সেনাপ্রধান

এখন সময়: শুক্রবার, ১২ জুলাই , ২০২৪, ০৫:৫০:৫৪ পিএম

ফরহাদ খান, নড়াইল  : বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, শিক্ষকতা পেশা আমার খুবই পছন্দের। আমার পিতাও শিক্ষক ছিলেন। আমার মেয়েও শিক্ষকতা করছে মেডিকেল কলেজে। আমার ছোট বোনটাও সহযোগী অধ্যাপক। যে আবার এমপিও। আমরা শিক্ষকতা খুব ভালোবাসি। শিক্ষকতার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারলে এর চেয়ে আনন্দের আর কিছু নেই। আমি সুযোগ খুঁজবো, মানুষ গ্রহণ করলে। একটা দর্শন আছে-আমার মধ্যে যে জ্ঞান আছে, এর কোনো মূল্য থাকবে না; যদি অন্যদের মাঝে তা বিতরণ করতে না পারি।

শনিবার বিকেলে নড়াইলের লোহাগড়ায় বাবার স্মৃতি বিজড়িত মল্লিক ইউনিয়ন সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিদায়ী সেনাপ্রধান এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ।

এর আগে তিনি লোহাগড়া বাজার এলাকায় ট্রাস্ট ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন করেন। এছাড়া সেনাপ্রধান এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ লোহাগড়ায় মধুমতি আর্মি ক্যাম্প পরিদর্শনে যান। এখানে স্থানীয় জনসাধারণের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ এবং গাছের চারা রোপণ করেন। এ সময় সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ আরো বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পৈত্রিকভিটা নড়াইলের করফা গ্রামে ছিলাম। এখানে অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। যা কখনো ভোলার নয়। লোহাগড়া, মল্লিকপুর ও করফা এলাকার কথা ভোলা যাবে না। এখানে বাবারও অনেক স্মৃতি রয়েছে। এলাকার জন্য বাবা অনেক কিছু করেছেন। অবসরের পরেও নড়াইলের সন্তান হিসেবে ক্রীড়াঙ্গন, পর্যটনসহ সব ক্ষেত্রে উন্নয়নের চেষ্টা করব।

প্রসঙ্গত, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার করফা গ্রামের সন্তান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ২০২১ সালের ২৪ জুন সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ পান।

নড়াইল সফরে এসে নির্মাণাধীন রেললাইন ও নড়াইল শহরের চারলেন সড়ক পরির্দশন, গ্রামের বাড়িতে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন, করফা গ্রামে বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত ১০ শয্যা বিশিষ্ট ‘অধ্যাপক শেখ মো. রোকন উদ্দীন আহমেদ’ মা ও শিশুকল্যাণ কেন্দ্র এবং মল্লিক ইউনিয়ন সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মাল্টিপারপাস হলরুম উদ্বোধন, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, শিশু-কিশোরদের শুভেচ্ছা উপহার প্রদান, শীতবস্ত্র প্রদানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ করেছেন সেনাপ্রধান। প্রতিবার নিজ জেলায় এসে গ্রামবাসীর ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৩ জুন নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান।