যশোর বোর্ডের ৯৯ এইচএসসি পরীক্ষার্থী পাচ্ছে অতিরিক্ত সময় ও শ্রুতি লেখক

এখন সময়: শুক্রবার, ১৯ জুলাই , ২০২৪, ০১:৫৭:৩৯ এম

মিরাজুল কবীর টিটো : এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় যশোর শিক্ষা বোর্ডের ৯৯ জন বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরীক্ষার্থী পাচ্ছে অতিরিক্ত সময় ও শ্রুতি লেখক।
এরমধ্যে ৬২ পরীক্ষার্থী অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় পাবে ও বাকি ১৭ পরীক্ষার্থী শ্রুতিলেখকের মাধ্যমে পাবে ২০ মিনিট বর্ধিত সময়। বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. বিশ্বাস শাহীন আহমেদ সাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে এতথ্য জানা গেছে।
বোর্ড সূত্র জানায়, ২০ মিনিট সময় বর্ধিত পাওয়া পরীক্ষার্থীরা হলো- খুলনা কলেজিয়েট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের সাইয়েদ ফারহান তাহমিদ। তার শ্রুতিলেখক খুলনা বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজের ১০ শ্রেণির তানভীন আহম্মেদ। কুষ্টিয়া পান্টি চৌরাঙ্গি কলেজের ফারজানা ইসলাম। তার শ্রুতিলেখক কুষ্টিয়া কুমারখালী এম.এন.পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির শেখ সামি। চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজের শাহরিয়ার রিফাত। তার শ্রুতিলেখক আলমডাঙ্গা জগন্নাথপুর-শ্রীরামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১০ম শ্রেণির সাদিক আহমেদ। ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডু মানদিয়া আইডিয়াল কলেজের নাাঈম উদ্দিন। তার শ্রুতিলেখক হরিণাকুন্ডু মানদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির মুরসালিন। খুলনা সরকারি হাজি মোহাম্মদ মহসিন কলেজের মিদুল রহমান। তার শ্রুতিলেখক খুলনা নয়াবাটী হাজী শরিয়ত উল্লাহ বিদ্যাপীঠের ১০ম শ্রেণির ইস্তি ইসলাম নিশি। ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ড সরকারি লালন শাহ্ কলেজের ইমা আক্তার। তার শ্রুতিলেখক হরিণাকুন্ড বলরামপুর দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসার ১০ম শ্রেণির রাতুল হাসান শামীম। নড়াইল লোহাগড়া সরকারি আদর্শ কলেজের রায়হান উদ্দিন। তার শ্রæতিলেখক নড়াইল চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণির মির্জা মো. রাজিবুল ইসলাম তামিম। খুলনা বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজের এম নাসিম নেওয়াজ। তার শ্রুতিলেখক খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র শাফিউল আজিম। নড়াইল লোহাগড়া নবগঙ্গা মহাবিদ্যালয়ের কাজী ইমাম হুসাইন। তার শ্রুতিলেখক নড়াইল লোহাগড়া কুমড়ী তালবাড়ীয়া মাউলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির কাজী হায়াতুর জামান সিয়াম। নবগঙ্গা মহাবিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থী কাজী ইমাম হাসান। তার শ্রুতিলেখক নড়াইল লোহাগড়া দিঘলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির কাজী মাহির বিন ইমরুল। খুলনা চালনা মহিলা কলেজের স্বর্ণা সাহা। তার শ্রুতিলেখক খুলনা চালনা বাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির তমালিকা সাহা। যশোর রুপদিয়া শহীদ স্মৃতি কলেজের প্রান্ত সেন। তার শ্রুতিলেখক রুপদিয়া ওয়েল ফেয়ার একাডেমির ১০ শ্রেণির ইয়ামিন হাসান। খুলনা সরকারি কলেজের পরীক্ষার্থী নওশিন ইসলাম। তার শ্রুতিলেখক দিঘলিয়া সেনহাটী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির সায়মা নুসরাত লামিয়া। পাইগাছা সরকারি কলেজের নাজমুল হুসাইন। তার শ্রুতিলেখক পাইকগাছা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির রিফাত হোসেন। কুষ্টিয়া আদর্শ কলেজের তাসমিম হক তৈয়বা। তার শ্রুতিলেখক কুষ্টিয়া সিরাজুল হক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী রুপালী খাতুন। কুষ্টিয়া ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রি কলেজের পরীক্ষার্থী আসিব হোসেন।  শ্রুতিলেখক ভেড়ামারা জগশ্বর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণির নাঈমুর হোসেন ও খুলনা ইন্ডিপেনডেন্স আইডিয়াল কলেজের পরীক্ষার্থী রহিম খান সানি। তার শ্রুতিলেখক খুলনা শিশু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির আল মাহমুদ।
এদিকে পরীক্ষায় বর্ধিত ৩০ মিনিট পাওয়া বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ৮২পরীক্ষার্থীরা হলো, সাতক্ষীরা ঝাউডাঙ্গা কলেজের আল আমীন ও মো. তুষার, ঝিনাইদহ রাইচরণ তারিনি চরণ কলেজের বৃষ্টি সিকদার, খুলনা সরকারি পাইওনিয়ার মহিলা কলেজের মালিয়া হাসান, আফিয়া হুসাইন বুসরা, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের ফারহা নাফসান নিমু, খুলনা কলেজের শুভজিৎ শংকর দাস, কুষ্টিয়া কুমারখালী পান্টি কলেজের তাসনিম সুলতানা বিথি, রিংকি খাতুন, সাব্বির হোসেন ও ফারজাহান আক্তার নুপুর, রূপদিয়া শহীদ স্মৃতি কলেজের সুমাইয়া আক্তার, নাসিমুল হাসান আসিফ ও ইমন হোসেন, চৌগাছা সরকারি কলেজের ইলিয়াস হাসান জীবন, মোংলা সরকারি কলেজের নুরনবী, মোংলা পাটকেলঘাটা হারুন-অর রশিদ কলেজের শুভ কুমার ঘোষ, শার্শা বাগআঁচড়া সম্মিলিত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের জান্নাতুজ জাকিয়া, চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের ইরিনা বিশ্বাস, পাটকেলঘাটা শহীদ জিয়াউর রহমান কলেজের টুম্পা সরকার, মাগুরা সরকারি মহিলা কলেজের নাইমা ইসলাম নওশিন, আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজের শাহরিয়ার রিফাত, যশোর উপশহর মহিলা কলেজের লুবনা আক্তার ও সামন্তা ইসলাম, ঝিনাইদহ শেখপাড়া দুখী মাহমুদ কলেজের হাবিবুল বাশার, পাইকগাছা শালিখা কলেজের আব্দুল্লাহ তুর, পাইকগাছা শালিখা কলেজের জাহাঙ্গীর আলম ও ফারজানা খাতুন, বাগহোট সরকারি প্রফুল্ল চন্দ্র কলেজের তামান্না আক্তার, কালীগঞ্জ শিমু-রেজা এমপি কলেজের শেখ মিজানুর রহমান ও উৎসব চক্রবর্তী, মণিরামপুর রাজগঞ্জ কলেজের মুন্না দিল রায়হান, পাইকগাছা সরদার আবু হোসেন কলেজের রবি সানা, নড়াইল সরকারি মহিলা কলেজের সুমাইয়া আহমেদ বুসরা, খুলনা সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের মৌমিতা ছন্দা কেয়া ও এস.এম. কৌশিক আহমেদ অরন্য, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের হৃদয় মোল্লা, খুলনা সরকারি ফুলতলা মহিলা কলেজের রুবিয়া বিনতে রেয়া, মণিরামপুর সম্মিলনী কলেজের রেজওয়ান আহমেদ লিখন, সাতক্ষীরা আলীপুর আদর্শ মহিলা কলেজের তামান্না মিম, ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডু প্রিয়নাথ স্কুল এন্ড কলেজের সিয়াম মালিথা, রিমন আহম্মেদ ও রাফেজা খাতুন, কুষ্টিয়া কুমারখালী সরকারি কলেজের সাইফ আলী সাঈদ, মিরপুর মীর আব্দুল করিম কলেজের মীম খাতুন, বাগেরহাট এম.এল. কলেজিয়েট স্কুলের আজিজুল করিম, তালা আইডিয়াল মহিলা কলেজের সুরাইয়া খাতুন ও অর্পিতা রায়, কুমারখালী গোপালপুর দরবেশপুর শামছুদ্দিন আহমেদ কলেজিয়েট স্কুলের রুপা খাতুন, মেহেরপুর বি.এন. কলেজের তরিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরা সাতানী ভাদড়া স্কুল এন্ড কলেজের সাফায়েত শামীম, কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের মৌলিতা খাতুন, নড়াইল লাহুড়িয়া এস.এম.এ. আহাদ কলেজের মৌলিতা খাতুন, খুলনা পাবলিক কলেজের রিফাত হোসেন, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের ফাতেমা তুজ জোহরা, ঝিনাইদহ বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল কলেজের সুমাইয়া খাতুন, বাগেরহাট মোংলা সরকারি টি.এ. ফারুক স্কুল এন্ড কলেজের নাঈম শরিফ, মাগুরা মাইজপাড়া কলেজের রিয়াজ হাসান ও জাকিয়া সুলতানা জলি, যশোর সরকারি কলেজের রোহান হোসেন, খুলনা বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজের এস.এম. মোহাইমিনুল ইসলাম, বাগেরহাট শেখ হেলাল উদ্দিন সরকারি কলেজের সুমাইয়া খাতুন লিজা, সুরাইয়া খাতুন লিমা ও অর্পা পাল, সাতক্ষীরা দিবা-নৈশ কলেজের নাঈম গাজী, কুষ্টিয়া গড়াই মহিলা কলেজের আখি খাতুন, জান্নাতুল মাওয়া ও জেসমিন আরা রিয়া, কলারোয়া শেখ আমান উল্লাহ কলেজের পংকজ কুমার আমিন, ঝিনাইদহ পৌর মডেল কলেজের ফাহিম, মণিরামপুর মাতৃভাষা মহাবিদ্যালয়ের সনজিৎ কুমার, যশোর ভাতুরিয়া উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শামীম, খুলনা ইন্ডিপেনডেন্স আইডিয়াল কলেজের নয়ন হোসেন, নড়াইল ইতনা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মোহনা আলম মৌ, ঝিনাইদহ সরকারি কেশবচন্দ্র কলেজের তাসনুভা তাসদিদ প্রান্তি, খুলনা সরকারি মহিলা কলেজের ফারিয়া নুসরাত অরণ্য, জেরিন আনজুম রাইসা ও নুসরাত সুলতানা আমিনা, খুলনা দৌলতপুর দিবা-নৈশ কলেজের শেখ জোবায়ের আহমেদ, খুলনা শহীদ সোহ্রাওয়ার্দী কলেজের পরীক্ষার্থী সৌমিক মন্ডল, লোহাগড়া নবগঙ্গা ডিগ্রি কলেজের মুবতাসিন আহমেদ জাগ্রত ও সোহাগ বিশ্বাস তুর্য।
বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. বিশ্বাস শাহীন আহমেদ জানান, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরীক্ষার্থীদের বর্ধিত সময়ে পরীক্ষা নিতে দায়িত্বপ্রাপ্তদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তারা এটি বাস্তবায়ন করবেন।