কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলার দুই মামলায় তিনজনের সাক্ষ্য গ্রহণ

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ১০:৩৬:৪৭ am

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরায় কলারোয়ায় সাবেক বিরোধীয় দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের দু’টি মামলার সাক্ষ্য দিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন ও আনছার আলীসহ তিনজন। মঙ্গলবার সাতক্ষীরার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক বিশ্বনাথ মন্ডল কাঠগোড়ায় উপস্থিত থাকা বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিসহ ৪০ আসামির উপস্থিতিতে এ সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। আগামি পহেলা আগষ্ট সোমবার পরবর্তী সাক্ষীর জন্য দিন ধার্য  করা হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, অস্ত্র ও বিষ্ফোরক দ্রব্য আইনের দু’টি মামলায় কারাগারে থাকা ৪০ আসামিকে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় জেলা কারাগার থেকে স্পেশাল টাইব্যুনাল-৩ এর কাঠগোড়ায় হাজির করানো হয়। এ মামলায় আরো নয় আসামি পলাতক রয়েছে। সকাল  ১০টা ৩৫ মিনিটে মামলার কার্যক্রম শুর হয়।  এ সময় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে  অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলার কলারোয়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, জব্দ তালিকার সাক্ষী আনছার আলী ও মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেনকে সাক্ষী হিসেবে হাজির করানো হয়।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সাতক্ষীরা জজ কোর্টের পিপি অ্যাড. আব্দুল লতিফ, অতিরিক্ত পিপি অ্যাড.আব্দুল বারি, অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. ফাহিমুল হক কিসলু, অ্যাড. নিজামউদ্দিন, অ্যাড. তামিম আহম্মেদ সোহাগ, অ্যাড. শেখ আজাহার হোসেন. অ্যাড. আব্দুস সামাদ, অ্যাড. সৈয়দ জিয়াউর রহমান প্রমুখ।

আসামিপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাড. আব্দুল মজিদ (২), অ্যাড. মিজানুর রহমান পিন্টু, অ্যাড. কামরুজ্জামান ভুট্টো, অ্যাড. এবিএম সেলিম, অ্যাড. সোমনাথ ব্যানার্জী প্রমুখ। এছাড়া নয়জন পলাতক আসামির পক্ষে দায়িত্ব পালন করেন অ্যাড. শামীম রেজা।

উল্লেখ ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সকাল ১০ টার দিকে তৎকালিন বিরোধী দলীয় নেত্রী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়নের হিজলদি গ্রামের এক মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে দেখতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে আসেন। সেখান থেকে যশোরে ফিরে যাওয়ার পথে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কলারোয়া উপজেলা বিএনপি অফিসের সামনে একটি যাত্রীবাহি বাস (সাতক্ষীরা-জ-০৪-০০২৯) রাস্তার উপরে আড় করে দিয়ে তার গাড়ি বহরে হামলা চালায় বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা।