কেশবপুরে ৯২ পূজামণ্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ১৫:৫৭:৩৩ pm

সিরাজুল ইসলাম, কেশবপুর : কেশবপুর উপজেলা ও পৌরসভার ৯২ পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব পালনের জন্য প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় সমাপ্ত হয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুর্গোৎসব পালনের জন্য সরকারি অনুদান বরাদ্দের পাশাপাশি নিরাপত্তার জন্য পুলিশের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

কেশবপুর উপজেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ইউপি মেম্বার গৌতম কুমার রায় জানান, সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে আগামী ১ অক্টোবর। ইতোমধ্যে প্রতিটা মন্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। তিনি আরো জানান, চলতি বছর কেশবপুর উপজেলা ও পৌরসভার ৯২ পূজামন্ডপে দুর্গা উৎসব পালনের জন্য প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করতে ভাস্কররা খুব ব্যস্ত সময় পার করছেন।

রোববার সকালে কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের পূজামন্ডপ পরিদর্শন কালে দেখা গেছে তাদের প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। উপজেলার ৯২ পূজা মন্ডপের মধ্যে কেশবপুর পৌরসভায় ৮টি, ত্রিমোহিনী ইউনিয়নে একটি, সাগরদাঁড়ি ইউনিয়নে ১৩ টি, মজিদপুর ইউনিয়নে ৬ টি, বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নে ৫ টি, মঙ্গলকোট ইউনিয়নে ৪ টি, কেশবপুর সদর ইউনিয়নে ৭ টি, পাঁজিয়া ইউনিয়নে ৯ টি, সুফলাকাটী ইউনিয়নে ১০, গৌরীঘোনা ইউনিয়নে ১০ টি, সাতবাড়িয়া ইউনিয়নে৯ টি ও হাসানপুর ইউনিয়নে ১০ টি রয়েছে।

কেশবপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক লিখন কুমার সরকার বলেন, উপজেলার কোনো ইউনিয়নে ঝুকিপূর্ণ পূজামন্ডপ নেই। তবে দুর্গোৎসব চলাকালীন সমস্ত মন্ডপে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের জন্য প্রয়োজীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। উৎসব চলাকালে পুলিশের বিশেষ ভ্রাম্যমাণ টিম মোতায়ন করা হবে।

কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম আরাফাত হোসেন দৈনিক স্পন্দনকে জানান, কেশবপুর উপজেলার ৯২ পূজামন্ডপে দুর্গোৎসব যথাযথ মর্যাদায় পালনের জন্য সরকারি অনুদান হিসাবে ৪৬ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।