যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল বক্ষব্যাধি চিকিৎসকের পদ নেই, হোমিও বিভাগ অচল

এখন সময়: বৃহস্পতিবার, ১ জুন , ২০২৩ ১৫:০৩:৫১ pm

 

বিল্লাল হোসেন : যশোর ২৫০ শয্যা ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে বক্ষব্যাধি চিকিৎসকের পদ নেই। রোগী এলে রোগের বর্ণনা শুনে ব্যবস্থাপত্র লিখছেন মেডিকেল অফিসার। এদিকে, হসপাতালের একমাত্র হোমিও চিকিৎসকের বদলীতে এই  বিভাগটি অচল হয়ে পড়ে পড়েছে। হোমিও বিভাগ সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করে দরজায় বিজ্ঞপ্তি সেটেছে কর্তৃপক্ষ। ফলে সরকারি এই হাসপাতালে হোমিও চিকিৎসার জন্য এসে রোগীরা ফিরে যাচ্ছেন। আর বক্ষব্যাধির মতো জটিল রোগীরা দায়সারা চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি যাচ্ছেন। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. হারুন অর রশিদ জানান, বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হবে।

হাসপাতালের প্রশাসনিক সূত্রে জানা গেছে, এখানে বক্ষব্যাধি চিকিৎসকের কোন পদ নেই। বিগত দিনে বক্ষব্যাধি বিভাগে ডা. জিজি কাদরী সংযুক্তিতে দায়িত্ব পালন করতেন। তিনি হাসপাতালের বর্হিঃবিভাগ ও আন্তঃবিভাগে রোগীর চিকিৎসাসেবা প্রদান করতেন।  কিন্তু দেড় বছর আগে তিনি অবসরে গেছেন। ফলে বর্তমানে  শ্বাসকষ্ট ও কাঁশিতে আক্রান্ত রোগীরা আসলে প্রথমে মেডিকেল অফিসার রোগের বর্ণনা শোনেন। রোগীর অবস্থা জটিল না মনে করলে তিনি (মেডিকেল অফিসার) ব্যবস্থাপত্র দেন। রোগের বর্ণনা জটিল মনে হলে মেডিকেল অফিসার মেডিসিন কনসালটেন্টের কাছে রেফার্ড করেন।

চৌগাছা উপজেলার ফুলশারা গ্রামের গৃহবধূ নাজমা বেগম জানান, শ্বাসকষ্ট ও কাঁশি নিয়ে ২১ দিনে মোট ৩ বার হাসপাতালে এসেছেন। প্রতিবারে চিকিৎসক ওষুধ লিখেছেন। ওষুধ খাওয়ার পর তেমন কোন উন্নতি হয়নি। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন ‘যে রোগের সেই ডাক্তার না হলে রোগ সারবে কি করে’। সামথ্য থাকলে বেসরকারি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করতাম। যোগ করেন তিনি।

আরেক রোগী মজেহার বিশ্বাস জানান, যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসাসেবার জন্য রোগীরা আসেন। সেখানে বক্ষব্যাধি চিকিৎসক না থাকার বিষয়টি খুবই কষ্টের। বিষয়টির সমাধান হওয়া উচিৎ।

এদিকে, সরকারি এই হাসপাতালে হোমিও প্যাথিক একটি বিভাগ ছিলো। সেখানে সরকারিভাবে রোগীদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হতো। ১০ টাকার টিকিটে চিকিৎসার পাশাপাশি এই বিভাগ থেকেই বিনামূল্যে ওষুধ পেতেন রোগীরা। প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ জন রোগী হোমিও চিকিৎসাসেবা নিতেন। এই বিভাগে দায়িত্ব পালন করতেন হোমিও মেডিকেল অফিসার ডা.মুছাকালিমুল্যাহ। তিনি গত ২০ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বদলি হওয়ার কারণে হাসপাতালের হোমিও বিভাগ অচল হয়ে পড়েছে।  মঙ্গলবার ১২৪ নম্বর কক্ষের সামনে গিয়ে দেখা গেছে, কর্তৃপক্ষ দরজায় একটি বিজ্ঞপ্তি মেরেছেন। সেখানে লেখা আছে হোমিও ডাক্তার সাহেবের বদলিজনিত কারণে হোমিও বর্হিঃবিভাগ সাময়িকভাবে বন্ধ থাকবে।

এই বিষয়ে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. হারুন অর রশিদ জানান, হাসপাতালে বক্ষব্যাধি চিকিৎসকের পদ নেই। বিগত দিনে একজন সংযুক্তিতে দায়িত্ব পালন করতেন। বক্ষব্যাধি কনসালটেন্ট পদ সৃষ্টির জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে লিখিতপত্র পাঠানো হবে। তিনি আরও জানান, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের বদলি হওয়ার কারণে বিভাগটি সাময়িক বন্ধ রয়েছে। উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে দ্রুত সমাধান করা হবে।