চারজনের ভুয়া আইডি কার্ড জব্দ

যশোর আদালত প্রাঙ্গণ থেকে টাউট ও দালাল উচ্ছেদ অভিযান শুরু

এখন সময়: রবিবার, ১৯ মে , ২০২৪, ১১:৪৫:০৫ এম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোর জুডিসিয়াল আদালত প্রাঙ্গণ থেকে টাউট ও দালাল উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে আইনজীবী সহকারী সমিতি। এ সময় আইনজীবী সহকারী পরিচয়দানকারী আদালতের বারান্দায় ঘুরে বেড়ানো অনেকের দেখা পাওয়া যায়নি। বুধবার আইনজীবী সহকারী সমিতির নেতৃবৃন্দ অভিযান চালিয়ে চারজনকে শনাক্ত ও ভুয়া পরিচয়পত্র জব্দ করেছেন। একই সাথে যারা নির্ধারিত ড্রেস পরিধান না করে আদালতে প্রবেশ করে তাদের ভৎসনা করা হয়।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় জেলা আইনজীবী সহকারী সমিতির সভাপতি ওমর আলী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মাজিদের নেতৃত্বে একটি দল প্রথমে হাজতখানার সামনে যান। সেখানে ঘুরে দেখেন। সেখানে থাকা দুইজনকে ধরে সতর্ক করেন। এ সময় একজনের কাছ থেকে মেয়াদ উত্তীর্ণ ও একজনের কাছ থেকে জাল পরিচয়পত্র উদ্ধার করেন। পরবর্তীতে তারা আদালতের প্রত্যেকটি এজলাসের সামনে গিয়ে টাউটদের চিহ্নিত করেন। তারা দেখতে পান, অনেকে আইনজীবী সহকারী না। অথচ তারা সহকারীদের ড্রেস পরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। আবার কেউ কেউ আইনজীবী সহকারী হলেও তাদের কাছে নেই কোনো পরিচয় পত্র, পরিধান করেনি নির্ধারিত ড্রেস। এছাড়া কয়েকজন আইনজীবী সহকারীকে পাওয়া যায় তারা নিজেরা কয়েকজন সহকারী তৈরি করে আদালত চত্বরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এমন কয়েকজনকে চিহ্নিত করে সহকারী সমিতির টাউট ও দালাল উচ্ছেদ কমিটির নেতৃবৃন্দ। আইনজীবী সহকারীর ভূয়া পরিচয় পত্র জব্দকরা হয়েছে অবাইদুর রহামন, ইয়াকুব আলী, প্রদীপ ব্যানার্জী ও এসএম নাসির উদ্দিনকে।

পরবর্তীতে জেলা আইনজীবী সমিতির দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী জুলু তাদের সাথে যুক্ত হন। এবার তারা মূল ফটকে অবস্থান নিয়ে টাউটদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করেন। এ সময় আইনজীবী সহকারী বাদেও শিক্ষানবিশ আইনজীবী পরিচয়দানকারী কয়েকজন চিহ্নিত করা হয়। একপর্যায়ে সকলকে সতর্ক করা হয়। জব্দ করা হয় চারজনের ভূয়া আইডি কার্ড।

এ বিষয়ে আইনজীবী সহকারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ বলেন, বর্তমানে আদালত চত্বরে টাউটদের আনাগোনা বেড়েছে। বিশেষ করে হাতেগোনা কয়েকজনের জন্য পুরো সমিতির ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। ফলে আদালত অঙ্গনের সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানিয়েছেন। 

এ বিষয়ে যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী জুলু বলেন, আদালত অঙ্গনে টাউট ও দালালদের কোনো জায়গা নেই। এখানে অন্যায় করে কেউ পার পাবেনা। সকলকে নিয়মের মধ্যে থাকতে হবে। এর বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

অভিযানে আরও অংশ নেন সমিতির সহসভাপতি মহসিন গাজী, আজিজুর রহমান, সহকারী সম্পাদক পদে আলীমুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুর রহমান, হিসাব নিরীক্ষক শহিদ এনামুল হোসেন, সমাজ কল্যাণ ও ক্রীড়া সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল, সদস্য হাসানুজ্জামান, আলী আশরাফ, আব্দুল জলিল প্রমুখ।