দাকোপে সতীনের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখল চেষ্টার অভিযোগ

এখন সময়: শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর , ২০২২ ২৩:৩৫:২৫ pm

দাকোপ প্রতিনিধি: স্বামীর অসুস্থতার সুযোগ দিয়ে প্রথম স্ত্রী সন্তান মিলে সম্পত্তি আত্মসাতের চেষ্টা করছেন এমন অভিযোগে দাকোপ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বাজুয়া এলাকার অসহায় গৃহবধূ শীলা রানী সরকার।

বুধবার বেলা ১১ টায় নিজের একমাত্র শিশু পুত্র সজিব সরকারকে সাথে নিয়ে দাকোপ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তৃতায় নিজেকে অসহায় হতদরিদ্র দাবি করে তিনি বলেন, আনুমানিক ১০/১২ বছর পূর্বে আমার স্বামী শম্ভুনাথ সরকার (৭৬) হৃদরোগে আক্রান্ত হন। ধীরে ধীরে প্যারালাইজড জ্ঞানবুদ্ধি ও চলনশক্তিহীন হয়ে পড়েছেন। আমার স্বামীর অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে তার প্রথম স্ত্রী সবিতা সরকার ও তার পুত্র রাজিব সরকার আমার শিশু পুত্র এবং আমাকে স্বামীর সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার চক্রান্তে সর্বদা মানষিক ও শারীরিক নির্যাতন করে আসছে। আনুমানিক ৪ বছর পূর্বে তারা আমার অসুস্থ স্বামীকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে রূপসা উপজেলার পিঠাভোগ মৌজায় থাকা স্বামীর নিজ নামের ২.৭০ একর সম্পত্তি কৌশলে টিপসহি নিয়ে জাল দলিল সৃষ্টি করে হাতিয়ে নিয়েছে। বর্তমানে তারা বাজুয়া মৌজার ৮.৩৯ একর বিলান সম্পত্তি যা বিগত ১১/১২/২০১৪  তারিখ আমার স্বামী ৩৪০ নম্বর এ্যাফিডেটি মূলে আমার নামে আমমোক্তার করে দেয়। ওই সম্পত্তি থেকে আমাকে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করছে। স্থানীয় সন্ত্রাসী মিল্টন বাহিনীকে ব্যবহার করে আমার ওই সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করছে তারা। মিল্টন বাহিনীর নেতৃত্বে আমাকে একাধিকবার মারপিটসহ নানা ভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এ বিষয়ে আমি দাকোপ থানায় বিভিন্ন সময় জিডিসহ অভিযোগ দায়ের করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা ও করেছি। তবুও তারা থেমে নেই, বরং তারা আরো ভয়ংকর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে। সর্বশেষ গত ১৬ আগষ্ট ২০২২ সকালে আমার সতিনপুত্র আমাকে মারপিট করে। বিষয়টি আমি তাৎক্ষণিক আমার প্রতিবেশী ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ফ্রান্সের নাগরিক টলি নাথ, নিখিল সরকারসহ অন্যান্য প্রতিবেশীদের জানালে তারা আমাকে আইনের আশ্রয় নিতে বলেন। আমি একদিকে অসহায় অন্যদিকে হতদিরদ্র। যে কারণে আইনী লড়াই চালিয়ে যাওয়া আমার পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে জমিতে চাষাবাদে যাওয়ার সাহস পাচ্ছিনা। এ অবস্থায় আমি স্বামীর দেয়া সম্পত্তি রক্ষায় প্রশাসনসহ সমাজের বিবেকবান মানুষের কাছে সহায়তা চাচ্ছি।