ঝিনাইদহ সরকারি ভেটেরিনারী শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ০৯:০০:২৭ am

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সরকারি ভেটেরিনারী কলেজে ৯৪ তম দিনেও বিভিন্ন দাবিতে ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ চালিয়েছে শিক্ষার্থীরা। সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের ব্যানারে এই আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা ৬ দাবি জানানো হয়। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মহল অবগত হলে দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়ে ছাত্রদের অবরোধ প্রত্যাহার করানো হয়। তখন তারা সড়কে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসের অডিটোরিয়াম ভবনে তাদের দাবি ও যৌক্তিকতা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) রথীন্দ্রনাথ রায়, কলেজের অধ্যক্ষ আতাউর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম শাহীন, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানাসহ ভেটেরিনারী কলেজের আন্দোলনরত শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক-কর্মচারীরা। দীর্ঘদিন ধরে প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কারিগরি যন্ত্রপাতির স্বল্পতা নিয়েই চলছে। শিক্ষা বিভাগের সংশ্লিষ্ট প্রজেক্ট বাতিল হওয়ায় কোর্স সনদের অনুমোদন বিড়ম্বনায় পড়েছে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীরা। অধ্যক্ষ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করেও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের শিক্ষার্থীদের দাবির পক্ষে কোনো সাড়া মেলাতে পারেননি। চাকরির অনিশ্চয়তায় সেখানে শিক্ষকরাও থাকতে চান না। কর্মকর্তাদের বাধ্য হয়ে ক্লাস নিতে হচ্ছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রথীন্দ্রনাথ রায় বলেন, ভেটেরিনারী কলেজ সরকারের ৫ বিভাগের সাথে সংশ্লিষ্ট। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ছাত্রছাত্রীদের দাবির কথা জানিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলিতে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ করেই এই সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, এই কাজ একজন এমপি সহজে করতে পারেন জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করে। তার পরেও আমি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করবো সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্য। ছাত্রছাত্রীদের দাবি ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে ডিভিএম ডিগ্রি প্রদানের কথা বলা হলেও তাদের কোর্স পরিবর্তন করা হয়েছে।

অত্র কলেজে ভর্তি সংক্রান্ত কাজ না করে অন্য কলেজ থেকে পরিচালনা করা হচ্ছে। ভর্তি ফি অতিরিক্ত বাড়ানো হয়েছে। শিক্ষক সংকট রয়েছে, বোর্ড পরীক্ষা শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত হয় এবং প্রতিষ্ঠানে আধুনিক কোনো যন্ত্রপাতি নেই। তাদের দাবি অচিরেই এই সমস্যা গুলোর সমাধান করা হোক। আলোচনা সভায় কলেজ ছাত্র সংসদের সহসভাপতি সাইফুজ্জামান মুরাদ ও সাধারণ সম্পাদক সজীবুল হাসান এই দাবি গুলো তুলে ধরেন। আলোচনা সভায় কর্মকর্তা আতাউর রহমান বলেন, এখন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কোনো প্রতিনিধি কলেজ পরিদর্শনে আসেনি। ছাত্ররা কি বলছে একবার তাদের এসে শোনা উচিত।