আঙ্গুর চাষে সাবলম্বী মহেশপুরের রশিদ

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ১৫:৫১:৫১ pm

অসীম মোদক, মহেশপুর : ফল ও সবজির চাষের পাশাপাশি শখের বসে আঙ্গুর ফল চাষে সাবলম্বী হয়েছেন আব্দুর রশিদ নামের এক কৃষক। তিনি ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের যোগিহুদা গ্রামের বাসিন্দা। শখের বসে আঙ্গুর ফলের চাষ করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি। সবুজ পাতার ফাঁকে ফাঁকে বাগানের সবগুলো গাছ জুড়েই রয়েছে শুধু থোকায় থোকায় আঙ্গুর। এতো আঙ্গুর ধরেছে যে পাতার ফাঁকে ফাঁকে শুধু আঙ্গুরই দেখা যাচ্ছে। তার দেখাদেখি এখন অনেকেই আগ্রহী হয়ে শুরু করেছেন আঙ্গুর ফলের চাষ।

জানা যায়, কৃষক আব্দুর রশিদ দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধরণের ফল ও সবজির চাষ করে আসছেন। পরে শখের বসে বিদেশি কয়েকটি জাতের আঙ্গুরের চারা সংগ্রহ করে তা রোপণ করেন। এর পর থেকেই আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

কৃষক আব্দুর রশিদ জানান, প্রথম দিকে ভারত ও ইতালি থেকে কয়েকটি জাতের আঙ্গুর সংগ্রহ করে নিজের ১০ কাঠা জমিতে আঙ্গুর চাষ শুরু করি। সাত মাস পরিচর্যার পর তার বেশিরভাগ গাছেই আঙ্গুর ফল ধরেছে। প্রতিটি গাছে ৫ থেকে ৭ কেজি করে আঙ্গুর ধরেছে। আঙ্গুর চাষের জন্য তিনি সিমেন্টের খুঁটি ব্যহার করেছেন। বাগানের ৬০টি গাছ থেকে আড়াই থেকে তিন শো’ কেজির মতো আঙ্গুর সংগ্রহ করতে পারবো বলে আশা করছি। তিনি আরও জানান, ভারত থেকে চারাগুলো সংগ্রহ করলেও আমাদের দেশের আবহাওয়া মাটি ও আদ্রতা ইত্যাদির বিবেচনায় গাছগুলো অনেক হৃষ্টপুষ্ট ও ভালো হচ্ছে। আঙ্গুর গুলো খুব মিষ্টি হওয়ার ফলে, আঙ্গুর চাষে বিদেশের উপর আঙ্গুর ফল আমদানি নির্ভরতা কমবে বলে জানান তিনি।

স্থানীয়রা জানান, আব্দুর রশিদের আঙ্গুর ফলের বাগান দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে প্রতিদিন মানুষ আসছে,আঙ্গুর ফল চাষে সাবলম্বী আব্দুর রশিদের কারণে গ্রামের পরিচিতি দ্বিগুন বেড়েছে বলে জানান তারা। এবং তার দেখাদেশি এখন অনেকেই আগ্রহী হয়ে শুরু করেছেন আঙ্গুর ফলের চাষ।

মহেশপুর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা হাসান আলী বলেন,মহেশপুরের মাটিটা আঙ্গুরের জন্য উপযোগী। এখানে এই ফলটা হবে বলে আমরা আশা করছি। একজন চাষি সফল হয়েছেন। শুরু থেকেই তিনি আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করেছেন এবং চলতি বছর তার বাগান আরও বিস্তৃত হয়েছে।