বাল্যবিয়ের সময় মাদ্রাসা ছাত্রী ও বরসহ আটক ৭, দু’জনকে জরিমানা

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ০৮:৪৬:০৯ am

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: পাইকগাছায় আইনজীবীর বাসায় রেখে বাল্য বিয়ে দেয়ার চেষ্টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মমতাজ বেগম ছেলের মামাকে ১০ হাজার টাকা এবং মেয়ের নানাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।

জানা গেছে, পাইকগাছায় বাল্য বিয়ের প্রস্তুতিকালে এক আইনজীবীর বাসা থেকে ১১ বছরের মাদরাসা ছাত্রী উদ্ধার ও বরসহ ৭ জনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

পুলিশ জানিয়েছে, রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে পৌরসভা সদরের বাসিন্দা রোটারিয়ান অ্যাড. মোহতাছিম বিল্লাহ’র বাসা থেকে শিশু শিক্ষার্থীকে উদ্ধার পূর্বক বর-কনে দু’পরিবারের ৭ জনকে আটক করে থানা হেফাজতে আনা হয়েছে। কনে মেঘলা গড়ইখালী ইউপি’র শান্তা মহিলা মাদরাসার ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। নহর আলী গাজীর কনে শিশু শিক্ষার্থীসহ কয়রার সাতহালিয়া গ্রামের কেরামত ঢালীর ছেলে বর রেজোয়ান ঢালী (২১) কে নিজ বাসাবাড়িতে রেখে অ্যাড. মোহতাছিম বিল্লাহ’র চেম্বারে দু’পরিবারের স্বজনরা বাল্য বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগমের নির্দেশে পুলিশের এসআই হাফিজ ও উপজেলা আনছার ভিডিপির প্রশিক্ষক আলতাফ হোসেন, আনসার কমান্ডার আবু হানিফ, ইউনিয়ন লিডার ফয়সাল হোসেন, ওয়ার্ড লিডার আব্দুর রহমান এবং পুলিশের কনস্টেবল আরিফসহ অন্যান্য সদস্যরা অ্যাড. মোহতাছিম বিল্লাহ’র বাড়িতে বর-কনে ও তার চেম্বারে অভিযান চালিয়ে আরো ৫ জনকে আটক করেন।  আটককৃতরা হলো, বর রেজায়ান ঢালী, তার মামা হযরত শেখ, ভগ্নিপতি ইয়াসিন গাজী, কনের নানা গড়ইখালীর খোকন গাইনসহ ২ জন মহিলা।

ওসি জিয়াউর রহমান বলেন, বাল্য বিয়ের প্রস্তুতিকালে শিশু শিক্ষার্থী উদ্ধারসহ আইনজীবীর বাসা ও চেম্বার থেকে ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন ইতোপূর্বে ওই আইনজীবীর বিরুদ্ধে বাল্য বিয়ে দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।