আশাশুনিতে অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, শাশুড়ি আটক

এখন সময়: বুধবার, ৭ ডিসেম্বর , ২০২২ ০৯:২৩:২৮ am

আশাশুনি প্রতিনিধি: আশাশুনির শ্রীউলা ইউনিয়নের নসিমাবাদ গ্রামের আরিফুল সানার অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ আসমা খাতুন (২২)কে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গৃহবধূর শাশুড়ি সালমা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার ভোরে গৃহবধূ আসমার ঝুলন্ত মরদেহ শ^শুর বাড়ির বারান্দার ক্লপসিবল গেটে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। আসমা খাতুন শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ী ইউনিয়নের খেজুরআটি গ্রামে আব্দুস সাত্তার সরদারের মেয়ে। স্বামীসহ পরিবারে অন্যরা সবাই পলাতক রয়েছে।

আসমার পিতা আব্দুস সাত্তার জানান, প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে নসিমাবাদ গ্রামের নূর মোহাম্মদ সানার ছোট ছেলে আরিফুল সানা (২৮) এর সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুক লোভী জামাই আসমার উপরে যৌতুকের দাবিতে অত্যাচার করত। অতিষ্ঠ হয়ে সাতক্ষীরা আদালতে ৪৫/২১ মামলা দায়ের করি যা বিচারাধীন আছে। গত বুধবার আসমা আমার বাড়ি থেকে শ^শুর বাড়িতে আসে। রোববার ভোরে সংবাদ পাই আসমা খাতুন আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাস্থলে এসে মেয়েকে দেখে এবং পার্শ্ববর্তী লোকজনের মুখে কথা শুনে আমরা নিশ্চিত হয়েছি তাকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখে আত্মহত্যার প্রচার করা হয়েছে।

স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান আরিফুলের একার পক্ষে এই কাজ করা সম্ভব হয়নি। এই ঘটনায় আসমার শাশুড়ি সালমা বেগম ও ভাসুর সাইফুল ইসলাম সানা জড়িত থাকতে পারে। এ ব্যাপারে আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মমিনুল ইসলাম (পিপিএম) জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরোতহাল রিপোর্ট শেষে লাশ ময়না তদন্ত জন্য সাতক্ষীরা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আসমার বড় ভাই সাইফুল সরদার বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে একটি এজাহার দাখিল করেছেন। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।